কৌশিক সালুই, টিডিএন বাংলা, বীরভূম : 
টানা বৃষ্টির জেরে বোলপুরে ডাকবাংলো মাঠে জেলার বই মেলা বন্ধ হয়ে গেল। এই ঘটনায় বই প্রকাশকরা মেলা আয়োজকদেরকে দোষারোপ করেছে।এই বৃষ্টির জেরে প্রায় কয়েক লাখ টাকার বই নষ্ট হয়েছে বলে জানান বই প্রকাশকরা।

জানা গেছে যে, ১৪-ই ডিসেম্বর থেকে এই বই মেলা শুরু হয়েছিল।এই মেলা শেষ হবার কথা ছিলো ২০-ই ডিসেম্বর। কিন্তু টানা বৃষ্টির জেরে বোলপুরে ডাকবাংলো মাঠে জেলার এই বই মেলা আগেভাগেই শেষ হয়ে যায়।

এক প্রকাশকের অভিযোগ, “এই মেলার স্টলগুলিতে সেইরকম পর্যাপ্ত ব্যবস্থা না থাকায় বৃষ্টির জল ঢুকে বহু দামি, দামি বই নষ্ট হয়ে গেছে। মেলার মাঠও জল কাদায় ভরতি।ফলে বই প্রেমীরা এই মেলায় খুব কম আসছেন।বৃষ্টির কারণে একাধিক স্টল বন্ধ করে দিতে হয়েছে।আমাদের এখানে এক একটি স্টলে প্রায় ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকার বই জলে ভিজে নষ্ট হয়ে গেছে। তাই বইমেলা শেষ হওয়ার আগেই আজ আমরা বেশ কিছু প্রকাশক চলে যাচ্ছি”।

আর এক প্রকাশকের অভিযোগ,”এই বই মেলায় স্টল করতে ১০০ স্কয়্যার ফুট জায়গা নিলে ৬৭০০ টাকা লাগে।এবং আমি এও দেখেছি ২৫ হাজার টাকা দিয়েও বইমেলায় জায়গা নিয়েছেন অনেক প্রকাশকরা।এত টাকা নেওয়ার সত্তেও যদি মেলা আয়োজকেরা ঠিকমতো ব্যবস্থা না করে তাহলে সেটি দুখের বিষয়।আমরা শুধু বোলপুরেই দেখি বইমেলায় বিশৃঙ্খল অবস্থা।কিন্তু অন্য জায়গায় বইমেলার সমস্ত কিছু ভালোভাবে ব্যবস্থা থাকে”। 

এই বিষয়ে বোলপুরের মহকুমাশাসক অভ্র অধিকারী বলেন, “আমরা বই প্রকাশকদের মেলায় থাকার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি। বৃষ্টির জন্য আমরা প্লাস্টিকের ব্যবস্থা করছি।” এই মেলার পাবলিক সিকিউরিটি সাধন কুমার রায় জানান, “মেলা কমিটি এই ঘটনায় প্রকাশকদের খুব সাহায্য করেছে। ঘটনা ঘটার পর তড়িঘড়ি ডেকোরেটাস কে ডেকে সমস্ত দোকানপাট ঠিক করে দিয়েছে মেলা কমিটি”।

প্রকাশক সুনীল গাঙ্গুলী জানান, ” অনেক ক্ষতি হয়েছে। মেলা কমিটি সাহায্য করেছে। তবে আর্থিক সাহায্য পেলে খুব ভালো হয়। তবে বেচাকেনা সেইরকম নেই এই মেলায়”। যদিও এখনো পর্যন্ত মেলার মেন গেট কর্দমাক্ত হয়ে আছে।