টিডিএন বাংলা ডেস্ক: দীর্ঘদিন ধরেই সারদাকাণ্ডে কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারকে নিয়ে জলঘোলা হচ্ছে। তাকে বার বার সিবিআই তলব করে। কিন্তু রাজীব কুমার সিবিআই কে চ‍্যালেঞ্জ জানিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন। এবার রাজীবের রক্ষাকবচ কে প্রত‍্যাহার করে দিল কলকাতা হাইকোর্ট। এদিন বিচারপতি মধুমিতা মিত্র রাজীবের রক্ষাকবচ কে খারিজ করে দেন। ফলে এই মুহূর্তে রাজীব কুমারকে গ্রেফতারে কোনও বাধা রইল না গোয়েন্দাদের।

এদিন আদালতে রাজীব কুমারের আইনজীবী সওয়াল করে বলেন, বার বার সিবিআইয়ের তলবে রাজীব কুমারের সামাজিক মর্যাদা ক্ষুণ্ণ হচ্ছে। পালটা সিবিআইয়ের আইনজীবী জানান, মামলার তদন্তে যে রাজীব কুমারকে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ প্রয়োজন তা সুপ্রিম কোর্টে জানিয়েছে সিবিআই। সিবিআইয়ের দাবি, সারদাকাণ্ডের তদন্তে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে সিট গঠন করেছিলেন তার প্রধান ছিলেন রাজীব কুমার। তখন অভিযুক্তদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে সারদার বহু নথি ও অন্যান্য তথ্যপ্রমাণ সরিয়েছেন তিনি।

দুপক্ষের আইনজীবীর সওয়াল শুনে বিচারপতি বলেন, একজন দায়িত্ববান আধিকারিকের তদন্তে সাহায্য করা। অপরাধ ধর্তব্যযোগ্য হলে গ্রেফতার করা যেতে পারে। সেক্ষেত্রে প্রত্যেকের জন্য আইনের সুরক্ষা রয়েছে। তদন্তে অংশগ্রহণ করলে কারও সম্মানহানি হয় এই যুক্তি গ্রহণযোগ্য নয়।

এদিকে সিবিআই সূত্রের খবর, রাজীব কুমারের মতো আইপিএস আধিকারিকের গ্রেফতারিতে সাবধানে এগোতে চায় তারা। সেক্ষেত্রে আজই রাজীব কুমারকে ফের তলব করতে পারেন গোয়েন্দারা। আগামিকালই তাঁকে তলব করা হতে পারে জেরার জন্য। হাজিরা না দিলে বা তদন্তে সহযোগিতা না করলে গ্রেফতার করা হতে পারে তাঁকে।