নিজস্ব প্রতিনিধি, টিডিএন বাংলা, দীঘা: দীঘা সফরের প্রথম দিনে বেশ খোশমেজাজে পাওয়া গেল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। মন্ত্রী সুভেন্দু অধিকারি এবং অন্যান্য দলীয় নেতৃত্বকে সঙ্গে নিয়ে গ্রামবাসীদের সঙ্গে সময় কাটালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সময় কাটানোর পাশাপাশি তাদের অভাব, অভিযোগ এবং সমস্যার কথা শুনলেন। সমাধানের পথ বলে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। দিদির মত গল্প করলেন এলাকার মানুষের সঙ্গে। পাশাপাশি ওই এলাকার বাচ্চাদের হাতে লজেন্সের কৌটো থেকে লজেন্স বার করে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বাচ্চাদের খুশি দেখে হাসলেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী নিজেও।

শুধু এলাকার মানুষের সঙ্গে কথা বলাই নয়, তারা কেমন আছেন তার খবর নিতে কয়জনের বাড়িতেও যান মুখ্যমন্ত্রী। তারা কি পরিস্থিতিতে আছেন সে বিষয়ে খোঁজখবর নিলেন তিনি। যাদের মাটির বাড়ি রয়েছে বাংলার বাড়ি প্রকল্পের আওতায় তারা বাড়ি তৈরির টাকা পাবেন বলেও জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের সঙ্গে সময় কাটাতে পেরে এবং তার সঙ্গে কথা বলতে পেরে খুশি এলাকার বাসিন্দারা। জানিয়েছেন, মুখ্যমন্ত্রীর একাধিক প্রকল্পের সুবিধা পাচ্ছেন তারা। তার জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রীকে। সকালে হাওড়ার এক বস্তিতে গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানকার মানুষের সমস্যার কথা শুনেছেন, পরে বিকালে দীঘায় গিয়ে ফের সাধারণ মানুষের সঙ্গে সময় কাটালেন মুখ্যমন্ত্রী।