টিডিএন বাংলা ডেস্ক: লকডাউনে বন্ধ কাজ। দিল্লীতে না খেতে পেয়ে অনাহারে অসুস্থ হয়ে মৃত্যু হলো বাংলার এক যুবকের। এমনটাই অভিযোগ পরিবারের। মৃত ওই যুবকের নাম মনিরুল পাইক(২৭)। তার বাড়ি দক্ষিণ ২৪ পরগনার উস্তি। পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, পরিবারের অনটন মেটানোর উদ্দেশ্যে মাস দেড়েক আগেই দিল্লী দিনমজুরের কাজে গিয়েছিলেন ওই যুবক। কাজ ভালো চলায় নিয়মিত বাড়িতে টাকাও পাঠাতেন তিনি। কিন্তু সম্প্রতি করোনা লকডাউনের জেরে কাজ বন্ধ যায়। 

পরিবারের অভিযোগ, কাজ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় হাতে থাকা সমস্ত টাকা পয়সা এক এক করে শেষ হয়ে যায়। তখনই বাড়ি আসার চেষ্টা করলেও গাড়ি বন্ধ থাকায় প্রবল সমস্যায় পড়েন। হঠাতই অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। কখনো পেট পুরে কখনো আবার অর্ধপেটেই দিন কাটাতে শুরু করে সে ও তার সহকর্মীরা। শুক্রবার রাতেই মৃত্যু হয় ওই যুবকের। বাড়িতে মনিরুলের মৃত্যুর খবর আসতেই কান্নায় ভেঙে পড়েছে তার পরিবার। বাবা মহ: নজরুল পাইক জানান, দুদিন আগেই আমরা জানতে পারি দি ছেলে প্রচণ্ড অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। তাকে একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার রাতেই ফোন আসে তার ছেলের মৃত্যু হয়েছে।