টিডিএন বাংলা ডেস্ক: এক দিনেই জ্বর ও সর্দি-কাশিতে একই বাড়ির দুজনের মৃত্যুতে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়াল কোচবিহারে। শনিবার রাতে কোচবিহার শহরে ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে হোম কোয়ারান্টিনে থাকা এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। গত তিন-চারদিন ধরে ওই ব্যক্তি জ্বর-সর্দি-কাশিতে ভুগছিলেন। এরপরই রবিবার সকালে ওই বাড়ির মালিকের স্ত্রীরও মৃত্যু হয়। গত ২৪ ঘণ্টার মধ্যে একই বাড়িতে দুজনের মৃত্যুর ঘটনাকে ঘিরে আতঙ্ক ছড়িয়েছে।

স্থানীয় কাউন্সিলার রমাপতি গুপ্ত চৌধুরী জানান, ‘ওই বাড়ির মালিক আমাকে ফোনে জানিয়েছেন, তাঁর স্ত্রী অনেকদিন ধরেই নানা অসুখে ভুগছিলেন। এদিন তাঁর স্ত্রীর শ্বাসকষ্ট দেখা দেয়। কিছুক্ষণের মধ্যেই মারা যান।’ কোচবিহারের মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ সুমিত গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, ‘মৃত্যুর খবর আমরা পেয়েছি। ওই বাড়িতে স্বাস্থ্যকর্মীদের পাঠানো হয়েছে।’

স্থানীয় বাশিন্দাদের অভিযোগ, মৃত্যুর পর তাঁর দেহ নিয়ে পরিবারের লোকজন কোচবিহার মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে গেলেও সেখানে দেহ পরীক্ষার জন্য নেওয়া হয়নি। এরপর তাঁর দেহ কীভাবে দাহ করা হয়েছে বা আদৌ দাহ হয়েছে কিনা, তা এখনও জানা যায়নি। গোটা ঘটনায় জেলা স্বাস্থ্য প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। কোতোয়ালি থানার পুলিশ গোটা ঘটনার কিছুই জানে না। ফলে তাদের ভূমিকাও প্রশ্নের মুখে।