অল ইন্ডিয়া মজলিস এ ইত্তেহাদুল মুসলিমিন বা মীমের বাংলা নেতা আনোয়ার হাসান পাশা বলেন, “আমাদের কাছে খবর এসেছে যে ২০১৭ সালের সরকারি ক্যালেন্ডার এ মুখ্যমন্ত্রী শ্রীমতি মমতা ব্যানার্জির ছবি দেওয়া হয়েছে।
আমরা এর বিরোধীতা করছি, কারণ এই ক্যালেন্ডার বিভিন্ন মাদ্রাসা আর মসজিদ এ বিতরণ করা হবে আর এটা ইসলামের বিরুদ্ধ।”
প্রাক্তন মাদ্রাসা ছাত্র নেতা মুহাম্মাদ আব্দুল মোমেন টিডিএন বাংলাকে জানান, “সংখ্যালঘু উন্নয়ন ও বিত্তনিগমের ক্যালেণ্ডারে মুখ্যমন্ত্রীর ছবি ছাপাটা দুঃখজনক। এই ক্যালেণ্ডারগুলি সংখ্যালঘু মুসলিম শিক্ষার্থীদের কাছে খুবই প্রয়োজনীয়৷ এই ক্যালেণ্ডারে বিত্তনিগমের প্রকল্পগুলি সম্পর্কে বিস্তারিত বিবরণী থাকে৷ তা দেখে তারা নানান প্রকল্পের সংবাদ পেয়ে উপকৃত হয়৷ এই ক্যালেণ্ডারগুলি মসজিদ মাদ্রাসায় ঝোলানো থাকলে বেশি সংখ্যক মুসলমানের গোচরে আসে৷ ইসলামে অপ্রয়োজনে ছবি ব্যাবহার হারাম বা নিষিদ্ধ৷তাই কোন মসজিদ মাদ্রাসাতে এই ছবি ওয়ালা ক্যালেণ্ডার ঝোলানো যাবেনা। এমনকি ধর্মপ্রাণ মুসলমান বাড়িতে এটা রাখবেনা৷ আমি এর নিন্দা করছি৷ সেই সাথে দাবি করছি এই ক্যালেণ্ডার বাতিল করে মসজিদ মাদ্রাসাসহ সর্বত্র ঝোলানোযোগ্য এমন ক্যালেণ্ডার ছাপা হোক৷”