টিডিএন বাংলা ডেস্ক: বৃহস্পতিবার রানাঘাট কলেজে রানাঘাট লোকসভা কেন্দ্রের ভোট গণনা চলছিল। খানিক দূরেই ৩৪নং জাতীয় সড়কের কাছে হবিবপুরের এক সিপিএম কর্মীর সঙ্গে কথা হচ্ছিল। বিভিন্ন কথাবার্তায় উঠে আসে রমা বিশ্বাস তাদের লোকসভা কেন্দ্রের ভাল প্রার্থী। তাকে ভোট দিইনি। দলীয় প্রার্থী থাকা সত্বেও বিজেপি কে ভোট দিয়েছি। হিন্দু ভোট বিজেপিতে আর মুসলিম ভোট তৃণমূলে পড়েছে। তিনি আরো জানান, বিজেপিকে ভোট দিতে তাঁর খুব কষ্ট হয়েছিল। তিনি বাধ্য হয়েছিল বিজেপিকে ভোট দিতে। আরও জানান, তাদের দলীয় প্রার্থীকে ভোট দিলে ভোট টা নষ্ট হয়ে যেত।একই কথা শুনিয়েছেন আরও এক সিপিএম কর্মী। তিনি ধানতলা থানার দত্তফুলিয়া গ্রামের বাসিন্দা অমিত হালদার। তিনি বলেন, আমার এলাকায় পঞ্চায়েত তৃণমূলের ক্ষমতায় রয়েছে। তাদের কাছে ঘর চেয়েছিলাম তারা মোটা টাকা চেয়ে বসে। সেই টাকা আমার পক্ষে দেওয়া সম্ভব ছিল না। সেইদিন ঠিক করেছিলাম সময় এলে এদের ব্যবস্থা নেব।রানাঘাট লোকসভা কেন্দ্রে নির্বাচনী প্রচার সভা করতে এসে বৃন্দা করাত বলেছিলেন, রুমা বিশ্বাস খুব ভাল মানুষ। অনেক দিনের পৌড়খাওয়া রাজনীতিবিদ। বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদ সামলেছেন। সবসময় মানুষের জন্য কাজ করেন। তাহেরপুরে রোড শো করতে এসে সিপিএমের বিমান বসুও রুমা বিশ্বাস ভাল প্রার্থী বলে দাবি করেন। জেলা বিজেপি সম্পাদক পঙ্কজ বোস অবশ্য বলেন, আমরা সিপিএম ও তৃণমূলের হিন্দু ভোট পেয়েছি।