টিডিএন বাংলা ডেস্ক: লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির বিরুদ্ধে বারবার বেআইনি টাকা লেনদেনের অভিযোগউঠেছে। খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিভিন্ন সভায় বাক্স বাক্স টাকা বিলির অভিযোগ করেছেন। এবার সেই অভিযোগ আরও স্পষ্ট হল। রবিবার বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের আপ্ত সহায়ক গৌতম চট্টোপাধ্যায়ের কাছ থেকে উদ্ধার হল ১ কোটি টাকা। আসানসোল জিআরপির হাতে গ্রেফতার দিলীপের আপ্ত সহায়ক গৌতম চট্টোপাধ্যায় ও অপর বিজেপি সদস্য লক্ষ্মিকান্ত সাহু। জিআরপি সূত্রে জানা গেছেরবিবার আসানসোল স্টেশনে  জন ব্যক্তিকে একটি ব্যাগ নিয়ে সন্দেহভাজন ভাবে দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে কর্তব্যরত নিরাপত্তারক্ষীরা। জনের ওপর নিরাপত্তারক্ষীদের নজর পড়ায় তা স্টেশনের এদিক ওদিক ঘোরাঘুরি শুরু করে। তাতেই সন্দেহ আরও দানা বাঁধে বলে জানানো হয়েছে জিআরপি সূত্রে। এরপরই জনকে জেরা শুরু করে আসানসোল জিআরপি। কথায় অসঙ্গতি থাকায় তাদের সঙ্গে থাকা ব্যাগের তল্লাশি নেওয়া হয়। ব্যাগ খুলতেই চোখ কপালে ওঠে জিআরপি কর্মীদের। টাকা গোনার মেশিনে উদ্ধার হওয়া নগদ অর্থ গুনে দেখা যায়১ কোটি টাকা কোনও রকম রশিদ ছাড়াই ব্যাগে করে নিয়ে যাচ্ছিলেন দিলীপের আপ্ত সহায়ক ও তার সঙ্গী। এরপরই আয়কর দফতরকে খবর দেওয়া হয় জিআরপির তরফে। আয়কর আধিকারিকদের জেরার মুখে গৌমত জানা ব্যাগ ভর্তি ১ কোটি টাকা তাদের। 
 
এরপরই রবিবার জনকে গ্রেফতার করে জিআরপি। অন্য দিকে অপর সঙ্গী লক্ষ্মিকান্ত সাহু জানাতিনি বিজেপির সদস্য। এই ১ কোটি নগদ টাকা দলের। নির্বাচনের কাজের জন্য তারা এই টাকা নিয়ে যাচ্ছিলেন। যদিও এই টাকা কোথায় নিয়ে যাচ্ছিলেন সেই বিষয়ে কিছুই স্পষ্ট জানা যায়নি। জিআরপির তরফে জানানো হয়এই ভাবে নগ ১ কোটি টাকা ব্যাগে করে নিয়ে যাওয়া বেআইনি। সোমবার জিজ্ঞাসাবাদের জন্য জনকে পাঁচ দিনের হেফাজত চেয়ে আসানসোল আদালতে তোলা হলে ধৃতদের চারদিনের হেফাজত দেয় আদালত। এই ঘটনায় বিজেপি জেলা নেতৃত্ব ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুলেছে।