নিজস্ব সংবাদদাতা, টিডিএন বাংলা, মুর্শিদাবাদ : শুক্রবার জঙ্গিপুর রেল স্টেশন সফরে এলেন পূর্ব রেলের ডিভিশনাল জেনারেল ম্যানেজার হরিন্দ্র রাও। জেনারেল ম্যানেজারকে পেয়ে একগুচ্ছ দাবি পেস করলেন একাধিক রাজনৈতিক ও সামাজিক দল। ডেপুটেশন গ্রহণ করে সমস্ত সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দেন জিএম। এদিন জেনারেল ম্যানেজার স্টেশনের পরিকাঠামো, সমস্যা খতিয়ে দেখেন।

নিজস্ব ছবি

জঙ্গিপুর স্টেশন থেকে কলকাতাগামী নতুন এক্সপ্রেস ট্রেন চালু, স্টেশনে একাধিক টিকিট কাউন্টার চালু, স্বয়ংক্রিয় টিকিট বুকিং মেশিন বসানো, রঘুনাথগঞ্জ শহরে টিকিট বুকিং কাউন্টার, স্লিপার ক্লাসের যাত্রীদের জন্য ওয়েটিং রুম, নসিপুর রেল ব্রিজ চালু, অসুস্থ এবং বয়স্ক যাত্রীদের জন্য স্টেশনে ওঠানামার জন্য লিফটের ব্যবস্থা, প্ৰতিদিন আধঘন্টা অন্তর ইলেকট্রিক ট্রেন চালুর দাবি নিয়ে ম্যানেজারের হাতে স্মারকলিপি জমা দেন ওয়েলফেয়ার পার্টির নেতৃবৃন্দ। ডেপুটেশন প্রদানে উপস্থিত ছিলেন পার্টির কর্ণাটক রাজ্যের সভাপতি তাহির হোসেন, জঙ্গিপুর মহুকুমা সম্পাদক আবুতাহের আনসারী, মনিরুল ইসলাম সহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ। পাশাপাশি জঙ্গিপুর থেকে কলকাতা, জলপাইগুড়ি, দিল্লী, মুম্বাই, চেন্নাই, কেরালাগামী ট্রেন, অতিরিক্ত টিকিট কাউন্টার, স্টেশনে এটিএম বসানো সহ প্রায় ১৪ দফা দাবি নিয়ে ডেপুটেশন প্রদান করেন জঙ্গিপুর প্যাসেঞ্জার কমিটির অন্যতম কর্তা আইনজীবী মোজাম্মেল হক।

নিজস্ব ছবি

অন্য দিকে সামসেরগঞ্জের নতুন শিব নগরের এলাকায় রেললাইনের আন্ডারপাস থাকলেও ওই রাস্তা দিয়ে চলাচলে ব্যাঘাত ঘটছে। বর্ষার সময় প্রচুর পরিমাণে জল জমে থাকায় স্কুলের ছাত্র ছাত্রীসহ এলাকাবাসীকে ভীষণ ভীষণ বিপাকে পড়তে হয়। তাই এই সমস্যা সমাধানে আজ এলাকাবাসী পূর্ব রেলের ডিভিশনাল জেনারেল ম্যানেজার হরিন্দ্র রাও এর নিকট ডেপুটেশন প্রদান করেন। উপস্থিত ছিলেন এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তি মোস্তাক হোসেন, মোহাম্মদ সেলিম ও ফারুক হোসেন।

নিজস্ব ছবি

পূর্ব রেলের ডিভিশনাল জেনারেল ম্যানেজার হরিন্দ্র রাও সকলের ডেপুটেশন গ্রহন করে খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন।

ডেপুটেশন প্রদান করে বেরিয়ে আইনজীবী মোজাম্মেল হক জানান, জনগনের সমস্যার কথা মাথায় রেখেই নতুন ট্রেন, স্টপেজ সহ ১৪ দফা দাবি নিয়ে আমরা জিএমকে ডেপুটেশন প্রদান করলাম। তিনি সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন। অন্যদিকে ডেপুটেশন শেষে ওয়েলফেয়ার পার্টির মহুকুমা সম্পাদক আবুতাহের আনসারী বলেন, বিড়ি শ্রমিক, রাজমিস্ত্রী অধ্যুষিত এলাকা থেকে কলকাতা যাবার মতো পর্যাপ্ত ট্রেন, টিকিট কাউন্টার বসানো, নসিপুর রেল ব্রিজ চালু করা, অসুস্থ এবং বয়স্ক যাত্রীদের জন্য স্টেশনে ওঠানামার জন্য লিফটের ব্যবস্থা, প্ৰতিদিন আধঘন্টা অন্তর ইলেকট্রিক ট্রেন চালুর দাবি নিয়ে ডেপুটেশন প্রদান করা হলো পার্টির পক্ষ থেকে। তিনি আশ্বাস দিলেও ডেপুটেশন প্রদানের সময় দাঁড়িয়ে জিএম ডেপুটেশন গ্রহণ করায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি।