টিডিএন বাংলা ডেস্ক: ডায়মন্ড হারবারের তৃণমূল প্রার্থী অভিষেক ব্যানার্জির নামে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ডায়মন্ড হারবারে প্রচারে এসে কিছু সাজানো, মিথ্যা ও ভিত্তিহীন অভিযোগ এনেছেন। তার জেরে অভিষেক প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে আইনি নোটিশ দিলেন। এমনকি মোদি যদি নিঃশর্ত ক্ষমা না চাইলে তাঁর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ারও হুমকি দিয়েছেন অভিষেক।

তৃণমূল প্রার্থী অভিষেকের আইনজীবী সঞ্জয় বসু চিঠিতে লিখেছেন, ১৫ মে দলের হয়ে ভোটপ্রচারে এসে ডায়মন্ড হারবারে সভায় আপনি আমার মক্কেল অভিষেক ব্যানার্জির বিরুদ্ধে বেশ কিছু সাজানো, ভিত্তিহীন অভিযোগ এনেছেন। এতে আমার মক্কেলের সুনাম নষ্ট হয়েছে। আপনার ভাষণে আপনি পরোক্ষে ভাতিজা ও দিদির প্রসঙ্গ উল্লেখ করেছেন। অথচ আপনি একথা জানেন যে মমতা ব্যানার্জিকেই দিদি বলে ডাকা হয় এবং আমার মক্কেল অভিষেক ব্যানার্জি তাঁর ভাইপো এবং ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ। আপনি অভিযোগ করেছেন যে অভিষেক অনুপ্রবেশকারীদের বেআইনি কাজকর্মে প্রশ্রয় দেন। এমনও ইঙ্গিত করেছেন যে, সম্মানীয় সাংসদ হয়েও সাংবিধানিক রীতিনীতি বিসর্জন দিয়ে সরকারি জমি জবরদখল করাটা তাঁর অভ্যাস। আমার মক্কেল তাঁর রাজনৈতিক অবস্থান কাজে লাগিয়ে তোলা আদায়ে সক্রিয় সিন্ডিকেটর সঙ্গেও জড়িত, এই অভিযোগও করেছেন আপনি। এমনকি অভিষেককে আপনি গুন্ডাও বলেছেন। এসব অভিযোগ পুরোপরি ভিত্তিহীন। আপনার পক্ষে এমন ভাষা প্রয়োগ শোভা পায় না। ভোটের ফল বেরোনোর পর আপনি অভিষেককে গ্রেপ্তারির ভয় দেখিয়েছেন। এসবে শুধু আপনার হতাশাই প্রকাশ পেয়েছে। যদি এই চিঠি পাওয়ার ৩৬ ঘণ্টার মধ্যে আপনি নিঃশর্ত ক্ষমা না চান,তাহলে আপনার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবেন তিনি।