প্রশান্ত দাস, টিডিএন বাংলা, মালদা : পারিবারিক অশান্তির জের। স্ত্রীকে ঘরবন্দী করে ধারালো শাবল দিয়ে পিটিয়ে খুনের চেষ্টার অভিযোগ উঠল স্বামীর বিরুদ্ধে। আক্রান্ত গৃহবধূ চিকিৎসাধীন মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। আক্রান্ত গৃহবধূর ডান পা এবং মাথায় গুরুতর চোট পেয়েছে বলে জানা গেছে।

গৃহবধূর বাপের বাড়ির সূত্রে জানা গেছে, স্বামীর সঙ্গে সংসার করতে রাজি নন ওই গৃহবধূ। তাই ঘরবন্দী করে মারধর করা হয় ওই গৃহবধূকে বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে হবিপুর থানার বুলবুলি মোড় এলাকায়। আক্রান্ত মহিলার নাম মমতা পাল(২৬)। ১৯ বছর আগে মমতাদেবীর বিয়ে হয় প্রশান্ত পাল নামে এক মৃৎশিল্পীর সঙ্গে। তাঁদের ১ ছেলে ও ১ মেয়ে রয়েছে।

জানা গেছে, প্রশান্ত সবসময় মমতাদেবীকে সন্দেহ করত। সেই সন্দেহের জেরে লোকজনের সাথে মেশা দায় হয়ে উঠেছিল তাঁর। অবশেষে তিনি রায়গঞ্জের কসবাতে বাবার বাড়ি চলে যান। গতকাল তিনি স্বামীর বাড়িতে মজুত থাকা শীতবস্ত্র নিতে এলে প্রশান্ত তাঁকে ঘরে বন্দি করে শাবল দিয়ে মারধর করে।

গুরুতর আহত অবস্থায় স্থানীয় লোকজন তাকে বুলবুলচণ্ডী প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভরতি করেন। সেখান থেকে তাকে রেফার করা হয় মালদা মেডিকেলে। বর্তমানে সেখানেই চিকিৎসাধীন তিনি। মমতাদেবীর পরিবারের পক্ষ থেকে হবিবপুর থানায় প্রশান্ত সহ শ্বশুরবাড়ির ৬জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।