টিডিএন বাংলা ডেস্ক: দীর্ঘদিন ধরেই কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিমের নামে ভুয়ো ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলে সরকার বিরোধী ও ধর্মীয় উসকানিমূলক বিভিন্ন ছবি ও লেখা পোস্ট করা হচ্ছিল। বিষয়টি জানতে পেরে বিধাননগর সাইবার ক্রাইম থানায় অভিযোগ জানিয়েছিলেন মেয়র। সেইমতো তদন্ত শুরু করে পুলিশ। এবং সেই অভিযোগের ভিত্তিতে শনিবার গভীর রাতে গ্রেপ্তার করা হয় অভিযুক্ত তরুণকুমার ঘোষ কে।

ধৃত ওই অভিযুক্তের বাড়ি বদ্বীপের বুইচা পাড়ার। সাইবার ক্রাইম তদন্ত করে হদিশ পায় তাঁর। এরপরই সাইবার ক্রাইম থানার তরফে যোগাযোগ করা হয় নবদ্বীপ থানায়। স্থানীয় থানা মারফত অভিযুক্তের গতিবিধির উপর নজর রাখছিলেন তদন্তকারীরা। শনিবার গভীর রাতে ওই ব্যক্তির বাড়িতে একযোগে অভিযান চালায় বিধাননগর সাইবার ক্রাইম থানা ও নবদ্বীপ থানার পুলিশ৷ বাড়ি থেকেই গ্রেপ্তার করা হয় তরুণকে।  যে মোবাইলটি থেকে ওই ভুয়ো অ্যাকাউন্টটি পরিচালনা করা হত, ইতিমধ্যেই সেটি বাজেয়াপ্ত করেছে পুলিশ।

রবিবার সকালে দীর্ঘক্ষণ ধৃত তরুণকুমার ঘোষকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন তদন্তকারীরা। জেরায় নিজের অপরাধ স্বীকার করে নেয় সে। কিন্তু কী কারণে এই কাজ, সে বিষয়ে এখনও মুখ খোলেনি অভিযুক্ত। পরে রবিবার ধৃতকে আদালতে তোলা হলে তাকে ৬ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ঠিক কী কারণে এই চক্রান্ত? আর কারা জড়িয়ে এই ঘটনার পিছনে, এসব জানতে জোরকদমে তদন্তে নেমেছে পুলিশ।