নিজস্ব সংবাদদাতা, টিডিএন বাংলা, বীরভূম: অপহরণের নাটক করে গ্রেপ্তার স্কুল শিক্ষক ও তার দুই বন্ধু। ধৃতদের বাড়ি সিউড়ি থানার গরুইঝোড়া গ্রামে। অভিযোগ, মায়ের সঙ্গে ঝগড়া করে বাড়ি থেকে বেড়িয়ে যায় আমির খান। তারপর বাড়িতে ফোন আসে আমিরকে অপহরণ করা হয়েছে। দিতে হবে পাঁচ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ। আমিরের বাবা পুলিশের দ্বারস্থ হয়। ঘটনার তদন্ত শুরু করে পুলিশ। যে নম্বর থেকে ফোন এসেছিলো সে নম্বরেই ফের ফোন করা টাকা দেওয়ার কথা জানানো হয়। এবং সেইমতো টাকা পৌঁছে দেওয়ার নাটক করা হয়। ফাঁদে পরে যায় আমির। সেই টাকা নিতে আসে। তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। গ্রেপ্তার করা হয় তার দুই বন্ধুকে। আজ ধৃতদের সিউড়ি আদালতে তোলা হয়। আদালত সূত্রে জানা গিয়েছে, ছেলেটির নাম আমির খান এবং তাঁর দুই সঙ্গীর নাম সুমন রায় এবং পল্টু মাহারা৷ তাঁদের সোমবার আদালতে তোলা বিচারক তাঁদের তিনদিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন৷ সরকারি আইনজীবী চন্দ্রনাথ গোস্বামী বলেন,” পুলিশ তদন্তে উঠে এসেছে যে ছেলেটি নেশা করত তাই ওই টাকা আদায় করতে চেয়েছিল। তাই এই অপহরণের ছক কষেছিল। ওই ফোনটি উদ্ধার এবং আরও কয়েকজনকে ঘটনার সঙ্গে যুক্ত আছেন তাঁদের গ্রেফতার করার জন্য পুলিশ তাঁদের নিজেদের হেফাজতে নিয়েছে।”