এবার যদি কোনো দোকান বা বাজারে গিয়ে যদি পছন্দস‌ই পোশাক বা বস্ত্র পেয়েযান ব্যহারের জন্য সম্পূর্ণ বিনা পয়সায় অর্থাৎ কোনো টাকা-পয়সাই দিতে হবে না – তবে কেমন হবে? হ্যাঁ, মুর্শিদাবাদে বহরমপুরে এমনি একটি দোকান ‘শেয়ার’ চলছে রমরমিয়ে। বহরমপুরের মর্নিং গ্লোরি ইউথ সোসাইটি এমন‌ই এক অভিনব পদক্ষেপে কাজ করে চলেছে ‘বিনা পয়সার বাজার’ বসিয়ে। বাজারটি বসেছে বহরমপুরে কোর্ট মার্কেটির কাছে স্কোয়ার ময়দানের মাইন গেটের বিপরিতে। আপাতত দু’দিন খোলা সপ্তাহে, সকাল ৯টা থেকে সন্ধ্যা ৫টা। মূলত দুঃস্থ যাদের পোশাক কেনার সামর্থ নেয় তাঁদের কথা ভেবে এমন একটা কাজ করে চলেছে এমজিওয়াইএস সংস্থা। এখানে যেকেউ এসে তাঁর প্রয়োজন ও পছন্দ মতো পোশাক বেছে নিয়ে যেতে পারছেন বিনা পয়সায়। এটা হল পুনঃ ব্যবহারযোগ্য দ্রব্য বিতরণ কেন্দ্র। এখানে পুরোনো কিন্তু ব্যবহারযোগ্য জিনিস মূলত গার্মেন্টস্ পাওয়া যায় বিনা মূল্যে।
যাঁর প্রয়োজন নেয় বা বাড়িতে রাখা নতুন-পুরোনো অব্যবহৃত বস্ত্র তাঁরা দিয়ে যান স্বেচ্ছায়। সেক্ষেত্রে শর্ত হল, জিনিসটি ব্যহারযোগ্য হতে হবে, ছেঁড়া-ফাটা হবে না, পরিচ্ছন্ন হতে হবে।
এই বাজারের হোল্ডিং-এ লেখা রয়েছে ‘শেয়ার হ্যাপিনেস এণ্ড রিগেইন ইমপাথ্যি’ অর্থাৎ, ভাগকর সুখ (আরাম) এবং পুনরূদ্ধার কর সহানুভূতি। দূরগ্রামে এই সুবিধা পৌঁছতে ফেরি পরিশেবাও চালু করেছে এই সংস্থার ‘শেয়ার’।