টিডিএন বাংলা ডেস্ক : বিজেপির সভায় মুকুল রায়ের আক্রমণের পাল্টা জবাব দিতে সোমবার রানি রাসমণি অ্যাভিনিউয়ে সভা করল যুব তৃণমূল কংগ্রেস। উত্তর কলকাতার যুব তৃণমূলের উদ্যোগে এদিনের সভার আয়োজন করা হয়। তবে যুবনেতার ব্যানারে সভা শুরু হলেও তৃণমূলের সর্বস্তরের নেতারা এদিন মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে সুর চড়ান। সভা থেকে এদিন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেন, “বাংলার মানুষ ওই দলের কথা শুনবে না। মানুষের বিশ্বাস অর্জন করা সহজ নয়।”
ভাটপাড়ার বিধায়ক অর্জুন সিংহ তোপ দাগেন মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে। পুরভোটে দাঁড়ালেও মুকুল রায়কে হারাবেন বলে হুঁশিয়ারি দেন তিনি। বলেন, “ভোটে বিজেপি জিতবে না। ৭৭ হাজার তো দূরের কথা, কাঁচরাপাড়ার ৭টি বুথ এজেন্টের নাম বলুন। রাজনীতি ছেড়ে দেব।” আরও বলেন,” মুকুলবাবু আপনি ভাবছেন নরেন্দ্র মোদি আপনাকে বাঁচিয়ে দেবেন। পারবেন না। আইন আইনের পথে চলবে। আপনি একটা গদ্দার। আপনি দলের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন। নেত্রীর সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন।”
রাজ্যের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যও এদিন মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে তোপ দেগে বলেন, “বাংলাকে বিভ্রান্ত করা যাবে না। কোনও বর্গী এসে বিভ্রান্ত করতে পারবে না।”
তবে এদিনের সভায় মুকুল রায়ের ছেলে উপস্থিত না থাকায় নয়া রাজনৈতিক জল্পনা তৈরি হয়েছে।
অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বিজেপির জনসভা থেকে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছিলেন মুকুল রায়। এর জেরেই তাঁর বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করার হুমকি দিয়েছেন তৃণমূলের যুব নেতা। তবে নিজের মন্তব্য সম্পর্কে মুকুল রায় জানান, তিনি যা বলেছেন সেটাই সত্য।