টিডিএন বাংলা ডেস্ক: আজ শনিবার বিকেলে কলকাতায় পা রাখবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। কিন্তু তার আগেই সবকিছুকে পিছনে ফেলে ফের টুইটারে ট্রেন্ডিং ‘গো ব্যাক মোদি’ স্লোগান। এদিন ফের আরও একবার টুইটারে ট্রেন্ডিং হল #GoBackModiFromBengal. নাগরিকত্ব আইনের বিরধিতায় বিক্ষোভের আগুনে জ্বলছে দেশ। দেশব্যাপী বিরধিতায় রীতিমতো চাপে কেন্দ্রের মোদী সরকার। নাগরিকত্ব আইনের পক্ষে হয়েও প্রচার চালাচ্ছে গেরুয়া শিবির। সেকারনে দেশের সমস্ত রাজ্যে বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচারাভিযানও চালাচ্ছে বিজেপি। দেশজুড়ে মোদি সরকারের বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইনের তীব্র বিক্ষোভের মধ্যেই বাংলায় আসছেন মোদি। কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর আসার আগে থেকেই বাম সহ একাধিক অরাজনৈতিক সংগঠনগুলি কালো পতাকা নিয়ে মোদিকে ধিক্কার জানানোর জন্য প্রস্তুতি নেয়। এদিন সকাল থেকেই সমস্ত সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হয়ে যায় ‘গো ব্যাক মোদি’ স্লোগান। 


প্রশাসন সুত্রে খবর, বিকেল ৪টায় দমদম বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাবেন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। ভিআইপি রোডে তাঁকে বিক্ষোভ ও কালো পতাকা দেখানোর আশঙ্কার জেরে বিমানবন্দর থেকে হেলিকপ্টারে করে সমস্ত জায়গা পরিভ্রমণ করতে পারেন। শনিবার ও রবিবার শহরে একাধিক অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী। রবিবার কলকাতা বন্দরের ১৫০ বছর পূর্তির মূল অনুষ্ঠান। সেখানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিও আমন্ত্রিত।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার অসমে খেলো ইন্ডিয়া ইয়ুথ গেমস ২০২০’য়ের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যাওয়ার কথা ছিল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী অসমে আসলেই বিক্ষোভের ডাক দেয় ছাত্র সংগঠন অল অসম স্টুডেন্টস ইউনিয়ন(আসু)। ফলে দেশজুড়ে চলমান বিক্ষোভের জেরে বুধবার অসম সফর বাতিল বলে ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।


এর আগে ২০১৯ সালের শেষের দিকে বিজেপি শাসিত বেঙ্গালুরুতে সফরে গিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেখানে পা রাখতেই শুরু হয় ‘গো ব্যাক মোদি‌!’  টুইটার হ্যাশট্যাগ ‘গো ব্যাক মোদি‌’ স্লোগানে ভরে উঠল নেট দুনিয়া।



তার আগে সেই বছরেই তামিলনাডুর চেন্নাইয়ে এক অনুষ্ঠানে মোদীর সফর ঘিরে সোশ্যাল মিডিয়ায় মোদিকে ‘গো ব্যাক মোদি’ স্লোগান শুনতে হয়েছিল। 


গুজরাটে ২০০২ সালে গোধরা দাঙ্গার সময় তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন নরেন্দ্র মোদী। সেই সময়েও মোদীকে নিজের রাজ্যে ‘গো ব্যাক মোদি‌’ শুনতে হয়েছিল। এবার নাগরিকত্ব আইন নিয়ে মানুষের ক্ষোভ এতোটাই চরম পরিমাণে সমস্ত রাজ্যে মোদীকে শুধু শুনতে হচ্ছে ‘গো ব্যাক মোদি’।