রিম্পা খাতুন,টিডিএন বাংলা,কলকাতা : বৃহস্পতিবার আট দফা দাবি নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর সাথে দেখা করলেন বঙ্গীয় ইমাম পরিষদের নেতারা।সেই সাথে একটি আরবী সহ ইংরেজি পবিত্র কুরআন তুলে দেয় ইমাম সংগঠনটি।রাজ্যপালকে কুরআন দিয়ে বঙ্গীয় ইমাম পরিষদের রাজ্য সম্পাদক রইসুদ্দিন পুরকাইত টিডিএন বাংলাকে  বলেন,”আমরা রাজ্য পালের সাথে দেখা করে একাধিক দাবি জানিয়েছি,সেই সাথে একটি কুরআন দিয়েছি।”
দেশে অভিন্ন দেওয়ানী বিধির কোনো প্রয়োজন নাই ৷ মুসলমান ছাড়া দলিত, খ্রীস্টান, জৈন, আদিবাসী এবং বুদ্ধিজীবী হিন্দুরাও তা চান না ৷ অতএব সাম্প্রদায়িক বিভাজন তৈরি না করতে কেন্দ্রকে বার্তা দিতে হবে বলে রাজ্যপালের কাছে আবেদন জানান ইমামরা।এছাড়া সংগঠনটির দাবি,অসমের জাতি, ধর্ম নির্বিশেষে সংখ্যালঘুদের নাগরিকত্ব ও নিরাপত্তা দিতে হবে ৷ বৈষম্য আচরণ ও প্রশাসনিক বন্ধ সহ সার্বিক ভাবে সরকারি সুযোগসুবিধা দিতে হবে ৷ সহিংসতা বন্ধ ও বড়ো জঙ্গীদের সংগঠনকে বাজেয়াপ্ত করতে হবে ৷ ইমামরা কেশরীনাথকে জানিয়েছেন,আমাদের দেশ উত্তপ্ত করতে কিছু বিভেদকারী সংগঠন প্রকাশ্য সমাবেশে সাম্প্রদায়িক হিংসা ছড়াচ্ছে ৷ দেশের শান্তির জন্য সেসব সংগঠন গুলিকে বাজেয়াপ্ত করতে হবে ,ও হিংসা ছড়ানো নেতাদের গ্রেফতার করতে হবে ৷ সেই সঙ্গে মিটিং, মিছিলে সাম্প্রদায়িক কুত্সা বন্ধে  সরকারকে সক্রিয় ভূমিকা নিতে হবে ৷ সম্প্রীতির পরিবেশ তৈরি করতে হবে ৷সেই সাথে এই ভারতে বিশ্বাসঘাতক ইংরেজদের নামে যত জায়গার নাম আছে, নাম পাল্টে স্বাধীনতা সংগ্রামীদের নামে উৎসর্গ করতে হবে ৷
বঙ্গীয় ইমাম পরিষদ আরও দাবি করে,প্রশাসন বিভাগে সংখ্যা- মুসলিমদের ২০ শতাংশ সংরক্ষণ দিতে হবে ৷সন্ত্রাস সংযোগের ভূয়ো অভিযোগে মুসলিম যুবকদের গ্রেফতার বন্ধ করতে হবে, ও নির্দোষীদের ছেড়ে দিতে হবে ৷রাজ্যপালের কাছে দেওয়া স্মারকলিপিতে বলা হয়, স্কুল থেকে কলেজ পর্যন্ত সত্য ও সঠিক ইতিহাস পঠন-পাঠনের ব্যবস্থা করতে হবে ৷সেই সাথে সুতি তথা অন্যান্য বিভিন্ন বিদ্যালয়ে সাম্প্রদায়িক সংগঠন যে প্রশিক্ষণ চালাচ্ছে তা বন্ধ করার ব্যবস্থা গ্রহণ ও গোদৌরাত্ব বন্ধ করতে হবে ৷
রাজ্যপাল ইমামদের কথা মনোযোগ দিয়ে শুনেছেন বলে ইমামদের দাবি।এদিন স্মারকলিপি জমা দেবার সময় মাওলানা আবু জাফর,মাওলানা আব্দুল্লাহ,আবুল হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
#টিডিএন বাংলা