টিডিএন বাংলা ডেস্ক: সিপিআইএমের মুখপত্র গণশক্তি দারিভিটে তৃণমূল বিজেপি আজ সাথে পঞ্চায়েত চালাচ্ছে বলে অভিযোগ করে একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে। ওই রিপোর্টে বলা হয়েছে, পণ্ডিতপোঁতা-২ নম্বর পঞ্চায়েতের মধ্যে পড়ে দাড়িভিট। ব্লক ইসলামপুর। ১৪টি আসন। তৃণমূল পাঁচটি, বিজেপি পেয়েছে পাঁচটি ও নির্দল পায় চারটি আসন।

সেই পন্ডিতপোঁতাতেই, সেই দাড়িভিটেই এখন গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের হাত থেকে বাঁচতে বিজেপি র পাঁচজনের সমর্থন নিয়েই বোর্ড চালাচ্ছে তৃণমূল। প্রধান তৃণমূলের রজি বেগম। বিজেপি র পছন্দের তৃণমূল নেত্রী রজি বেগমকেই প্রধান করা হবে সেই শর্তেই দেওয়া হয়েছে সমর্থন। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে দল ভাঙানোর খেলায় ব্যস্ত শুভেন্দু অধিকারি ইসলামপুরে এসে দাড়িভিট নিয়ে হুমকি, নিহতের পরিবারকে টাকা দিয়ে কেনার কথা জানালেও একবারের জন্যও মুখ খোলেননি তৃণমূল ও বিজেপি র এই যৌথ পঞ্চায়েত নিয়ে।

প্রধান ঠিক করছে বিজেপি,পঞ্চায়েত চালাচ্ছে তৃণমূল। কলকাতায় তথাকথিত   বিজেপি বিরোধী  তৃণমূলের সমাবেশের চব্বিশ ঘন্টা আগে দাড়িভিট ফের একবার প্রমাণ, হাত ধরেই এগচ্ছে প্রতিযোগিতামূলক সাম্প্রদায়িকতার রাজনীতি। তছনছ হচ্ছে নিস্তরঙ্গ গ্রাম জীবন। এই সাংসদ মুহাম্মদ সেলিম বলেন, ‘একথাই তো আমরা বলে আসছি প্রথম থেকেই। শূন্যপদে নিয়োগের দাবি ছাত্র-যুব আন্দোলনের তরফে বারেবারে করা হচ্ছে। এটা গুরুত্বপূর্ণ দাবি। সেই লড়াইকেই দুর্বল করতে উর্দু শিক্ষক নিয়োগ বনাম সংস্কৃত শিক্ষক নিয়োগের মত বিষয়কে সামনে আনা হয়েছে আর তাতে মদত দিচ্ছে শাসক তৃণমূল ও প্রশাসন। গুলি চালিয়ে ছাত্র খুন করে আরএসএস র মত শক্তিকেই জায়গা করে দেওয়া হচ্ছে।

ইসলামপুরের তৃণমূল বিধায়ক কানাইলাল আগরওয়াল। তৃণমূলেরই দাবি, বিজেপি র দিকে একটু ঝুঁকে আছেন এই বিধায়ক। রামনবমীর সময় ইসলামপুরে বিরাট সশস্ত্র মিছিলে এই বিধায়কের নেতৃত্বেই ৩১নম্বর জাতীয় সড়কের ধারে তৃণমূলের তরফে ক্যাম্প করে আরএসএস র মিছিলকারীদের জল ও মিষ্টিমুখ করানো হয়েছিল। তৃণমূলের দাপটের এলাকা ফার্ম কলোনি, চোপড়াঝাড়,নেতাজীপল্লির মত এলাকায় বহাল তবিয়তেই চলছে আরএসএস র শিবির, প্রশিক্ষণও। সূত্র: গণশক্তি