নিজস্ব সংবাদদাতা, টিডিএন বাংলা, কলকাতা: ঐক্যের বার্তা দিতে একুশ বছর ধরে নামাজ,রোজা ও পুজোতে ব্যাস্ত কলকাতার এক হিন্দু অধ্যাপক। নিজের ধর্মকে যথারীতি মেনেই সম্প্রীতি রক্ষার বার্তা দিতে উদয়ন মিত্র এতটা বছর ইদ, নামাজ,রোজা ও মুসলিমদের ধর্মীয় রীতি মেনে চলেন। এবারের রেড রোডের ঈদের জামাতেও তিনি অংশ নেন। কিন্তু কেন একজন হিন্দু হয়েও মুসলিমদের ধর্ম পালন করেন তিনি? ওই অধ্যাপকের মন্তব্য,”মন চাই, ভালোবাসি, তাই এইসব করি।”

মাথায় টুপি,গায়ে পাঞ্জাবি পরেই  ইসলাম ধর্মের রীতি মানেন তিনি।

হ্যাঁ, এক নয়, দুই নয়,২২টি বছর ধরে নীরবে ভালোবেসে মুসলিমদের সাথে সম্পর্ক রেখে চলেছেন অধ্যাপক উদয়ন মিত্র। কলকাতার বৌবাজারের নবীন চাঁদ বড়াল সরণিতে থাকতেন ওই অধ্যাপক।এখন দুর্গাপুরের সুভাষ পল্লীতে থাকেন।বিবিএর অধ্যাপক উদয়ন মিত্র দুর্গাপুর ইনিস্টিটিউট অফ সাইন্স টেকনোলজি এন্ড ম্যানেজমেন্টে শিক্ষকতা করেন। বাবা ও মা দুইজনেই সরকারি কর্মী ছিলেন।

উদয়ন মিত্র টিডিএন বাংলাকে বলছিলেন,”আমি ১৯৯৬ সাল থেকে ঈদের নামাজ পড়ি ৷ অন্য জায়গায় নামাজ পড়লেও বেশিরভাগ নামাজ রেডরোডে হয়েছে। কারন ওখানে সরকারের বিভিন্ন পদস্থ আমলারা থাকেন এবং বিভিন্ন ভাষা সম্প্রদায়ের মানুষ থাকেন। তাঁদের সাথে ভীষনভাবে ভালবাসা ও আত্মীয়তা গড়ে ওঠে ৷ আসলে এটা শুরু হয়েছে মূলত ভালোলাগা থেকে।”

কিন্তু একজন হিন্দু হয়ে কেন নামাজ পড়েন এতটা বছর ধরে? ওই অধ্যাপক জানালেন,”নামাজে সবার সাথে সমবেত হওয়াতেই মনের শান্তি ৷ এটাই সম্প্রীতির বার্তা ৷ নামাজের জামাতে এত মানুষের সমাগম, সম্প্রীতির মেল বন্ধন, সত্যিই অসাধারণ লাগে আমাকে। ভাল লাগা আর মনের পবিত্রতা থেকে বলছি, মুসলিমদের আতিথেয়তায় আমি মুগ্ধ ৷ আমাকে বিভিন্ন আধিকারিক এবং পুলিশ অফিসার পাঞ্জাবী-পাজামা কিনে দিয়েছেন ৷ অনেক সময় ক্যালকাটা মাদ্রাসার হেডমাস্টার মশাই তাঁর বাড়ীতে আর পাঁচ জনের মত ইফতার সাজিয়ে রেখেছেন।আমি ইফতারও করেছি।”

সম্প্রীতি ও শান্তির বার্তা নিয়ে দরজায় দরজায় যেতে চান উদয়ন। কিন্তু কর্ম ব্যাস্ততার কারণে পেরে ওঠেননা।

“আমি মুসলিমদের কাজে খুবই খুশি।আমি সবাইকে উতসাহিত করি ঈদের দিন ফজরের নামাজ পড়ার জন্য ৷ কারন আমার জানা মতে, ফজরের নামাজ না পড়লে ঈদের নামাজ কবুল হয় না। কখনও কখনও মসজিদে ঢুকে যদি দেখি জানাজার নামাজ হচ্ছে আমি তাতে শরিক হই ৷ ছোট বাচ্চা যখন জন্মায় তখন তার কানে আযান দেওয়া হয় আর মারা গেলে জানাজার শেষ নামাজ ৷ তাই আমি দাড়িয়েই জানাজার নামাজ পড়ি।”-কথাগুলি এক দমে বললেন অধ্যাপক উদয়ন মিত্র।

বহু প্রভাবশালী মুসলিম সাংসদ, বিধায়ক, আমলা ও জনপ্রতিনিধিদের সাথে মেলা মেশা আছে উদয়ন বাবুর।কিন্তু হিন্দু হয়েও ২২ বছর ধরে ঈদের নামাজ পড়ার জন্য কেউ কি কোনও সমস্যা করেছে? ওই অধ্যাপক বললেন,”আমাকে নামাজ পড়ার কারণে পরিবার থেকে কেউ অভিযোগ জানায়নি, কারন এটা আমার নিজের ব্যাপার ৷ মন যেদিকে নিয়ে যাবে সেই পথেই আপনার পরকাল প্রভাবিত হবে।”

তবে এত কিছুর মধ্যেও নিজের হিন্দু ধর্মকে আঁকড়ে ধরে রয়েছেন অধ্যাপক উদয়ন মিত্র।