কিবরিয়া আনসারী, টিডিএন বাংলা, মুর্শিদাবাদ: চলছে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা। পরীক্ষার কথা মাথায় রেখে আগে থেকেই ধর্মীয়, রাজনৈতিক, ব্যক্তিগত অনুষ্ঠানে উচ্চস্বরে মাইক বাজানোয় সর্তকবার্তা দিয়েছে প্রশাসন। প্রশাসনের আইন কে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষাকে উপেক্ষা করে উচ্চস্বরে ডিজে বাজল ইসলামপুরে। ডিজে বাজিয়ে নিজের বাড়ির অনুষ্ঠানে আনন্দে মাতলেন খোদ শিক্ষকও। ঘটনাটি মুর্শিদাবাদ জেলার ইসলামপুর থানার চক-ইসলামপুর এলাকার।

উচ্চস্বরে মাইক বাজানোর ফলে এলাকার বেশকিছু উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর পড়ায় বিঘ্ন ঘটছিল বলে খবর। পরীক্ষার্থীরা রাতেই ইসলামপুর থানায় গিয়ে অভিযোগ করেন অভিযুক্ত শিক্ষক বাপ্পা রানু বুধুর নামে।

পুলিশ সূত্রে খবর, বৃহস্পতিবার রাতে শিক্ষক বাপ্পা রানু বুধুর এক মাত্র ছেলের অন্নপ্রাশনের অনুষ্ঠান চলছিল বাড়িতে। অনুষ্ঠানে আনন্দ নাচ,গান করার জন্য সারারাত্রী ব্যাপি ডিজের আয়োজন করেছিলেন। অতিথিদের আনন্দ দিতে বাইরে থেকে আনা হয়েছিল শিল্পীদের। রাতে শুরু হয় ডিজে গানের আসর। আনন্দে মাতোয়ারা হয়েছিলেন সকলেই। শুরু হয় শব্দের আরও তীব্রতা। ডিজে গানের উচ্চস্বরে ক্ষুদ্ধ হয়েছিলেন সকলেই।

পুলিশ আধিকারিক জানান, আগেও সর্তক করা হয়েছে। তারপরও আইন কে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে উচ্চস্বরে ডিজে,গান বাজাচ্ছিলেন ওই শিক্ষক। উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের পড়াশোনায় বিঘ্ন ঘটছিল। পরীক্ষার্থীরা থানায় গিয়ে আমাদের অভিযোগ করেন। পরীক্ষার্থীদের কথা ভেবে ১৮৮ ও ৩৪ বি এর সরকারি নিয়ম অনুযায়ী অনুষ্ঠান বন্ধ করি।

স্থানীয় বাসিন্দা নারায়ন দাস জানান, অনুষ্ঠানের শুরুতেই নিষেধ করেছিলাম ডিজে বক্স বাজাতে। আমার কথা না শুনে বরং আরও উচ্চস্বরে ডিজে বাজাতে শুরু করে। অবশেষে পুলিশ এসে সেটি বন্ধ করে।

এক উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী বলেন, শিক্ষক মহাশয় জানেন উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা চলছে। তারপরও তিনি ব্যাপক শব্দে ডিজে বাজিয়ে বাড়ির অনুষ্ঠান করছিলেন। ফলে পড়াশোনা তো দুরের কথা। বাড়িতে থাকায় দায় হয়ে পড়ছিল।