টিডিএন বাংলা ডেস্ক: নাকাশিপাড়ার হিন্দু জাগরনমঞ্চের প্রাক্তন সভাপতি কমল চক্রবর্তী ও আরএসএসের নেতা কার্তিক মহাত সহ প্রায় ১০০ জন বিজেপি কর্মী তৃণমূলে যোগদান করেন।

নাকাশিপাড়া যুব-তৃণমূলের কর্মিসভায় উপস্থিত ছিলেন নাকাশিপাড়া তৃণমূলের কার্যকরী সভাপতি কনিষ্ক চট্টোপাধ্যায়, ব্লক যুব-তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি আব্দুর রশিদ মন্ডল, যুব-তৃণমূলের সাধারন সম্পাদক তন্ময় দত্ত, নাকাশিপাড়া পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি ব্রজেশ্বর রায়। বৃহস্পতিবার আবদুল রশিদ বলেন, আমাদের দলীয় প্রার্থী মহুয়া মৈত্রর নির্দেশে নাকাশিপাড়া বিধানসভা কেন্দ্রের প্রত্যেকটি পঞ্চায়েতের বাড়িতে বাড়িতে প্রচার চলছে। তৃণমূল সরকারের উন্নয়নের কথা মানুষের কাছে তুলে ধরছি। কেন্দ্রে বিজেপি সরকারের যে মিথ্যাচার ও দুর্নীতি করেছে সভার মাধ্যমে তা আমরা মানুষের কাছে তুলে ধরেছি। তৃণমূলের সরকারের উন্নয়ন দেখে আরএসএস ও নাকাশিপাড়া হিন্দু জাগরণ মঞ্চের সভাপতি সহ ১০০ জন এদিন তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেছেন।

কমল চক্রবর্তী বলেন, আমি নাকাশিপাড়া হিন্দু জাগরণ মঞ্চের প্রাক্তন সভাপতি ছিলাম। আমরা যে ভাবনা নিয়ে হিন্দু জাগরণ মঞ্চে যোগদান করেছিলাম, তার কিছুই পাইনি। বিজেপি আমাদের মত মানুষদের ব্যবহার করে সাধারণ মানুষকে মধ্যে সাম্প্রদায়িকতার বিষ ছড়িয়ে দিতে চায়। আমরা ভুল বুঝতে পেরেছি। উন্নয়নের কোনও কাজ নেই, ওই সংগঠনের পতাকার তলায় দাঁড়িয়ে আমরা যে ভুল করেছি, তা শোধরাতে আমরা তৃণমূলে যোগদান করলাম।

এই রাজ্যে তৃণমূল সরকার যে উন্নয়ন করেছে, তা কেন্দ্রে বিজেপি সরকারের উন্নয়নের থেকে বেশি। আমরা তৃণমূল সরকারের উন্নয়নকে তুলে ধরতে চাই মানুষের কাছে। এদিকে, লোকসভা নির্বাচনের আগে এরকম দলবদল নাকাশিপাড়া বেথুয়াডহরি-১ ও ২ পঞ্চায়েতে বিজেপি অনেকটা দুর্বল হবে বলে মনে করছে তৃণমূল। সূত্র:পুবের কলম