নিজস্ব প্রতিনিধি, টিডিএন বাংলা, বীরভূম: মারণ রোগ করোনাভাইরাস মোকাবিলায় লকডাউন সফল করতে কোন চেষ্টার ত্রুটি রাখছে না পুলিশ। প্রথমদিকে বল প্রয়োগ। তারপরে কিছুটা গান্ধীগিরি অর্থাৎ পুলিশকর্মীরা নিজেরা গান গেয়ে মানুষকে ঘরে থাকার আহ্বান, তারপরে বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে রাস্তার উপরে করোনা ভাইরাস সতর্কতার ছবি আঁকা ।

এবার শুরু হয়েছে গাড়ি, বাইক, অটো, টোটো বাজেয়াপ্ত করার পালা। বীরভূম জেলার পুলিশ জেলাজুড়ে নাকা চেকিং শুরু করেছে। বাইরে বেরোনোর জুতসই কারণ না থাকলে গাড়ি বাজেয়াপ্ত করে রাখা হচ্ছে থানায়। লকডাউন উঠে গেলে সেই বাজেয়াপ্ত করা গাড়ি ফেরত পাবেন মালিকরা বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে। অন্যদিকে নজরদারি করতে সিউড়ি শহরে ড্রোন ক্যামেরার ব্যবহার করা হচ্ছে।

করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। অধিকাংশ মানুষ লকডাউন পালন করলেও অনেকেই অকারনে গাড়ি, বাইক নিয়ে ঘুরে বেড়ানো, পাড়ার মোড়ে মোড়ে জমায়েত করা এসব ছিলই। সে গুলোকে বন্ধ করতে লকডাউন এর প্রথম দিকে পুলিশ বলপ্রয়োগ শুরু করে। তাতে পুলিশের ভয়ে অনেকে অকারণে বাড়ির বাইরে বেরোনো বন্ধ করে দেন।

পুলিশের এই বলপ্রয়োগ কিছুটা শিথিল হতেই আবার কিছু সংখ্যক মানুষ রাস্তায় অকারণে নামতে শুরু করেছে। লকডাউন শেষ হতে এখনও প্রায় দশ দিন বাকি আছে। তাই পুলিশ বাধ্য হয়ে এবার নাকা চেকিং করে গাড়ি বাজেয়াপ্ত শুরু করেছে। বীরভূম জেলাজুড়ে এই কর্মসূচি চলছে পুলিশের। জাতীয় সড়ক, রাজ্য সড়ক এবং শহরের বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে পুলিশ গাড়ি, বাইক বা টোটো,অটো নিয়ে রাস্তায় বেরোনো মানুষদের কে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। বাইরে বেরোনোর কারণ এবং প্রয়োজনীয় নথি দেখাতে না পারলেই সঙ্গে সঙ্গেই তার গাড়ি বাজেয়াপ্ত করে থানায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। লকডাউন উঠে গেলে গাড়ির মালিকরা ফের গাড়ি ফেরত পাবেন বলে জানা গিয়েছে। এর আগে পুলিশ নিজেরাই গান করে মানুষকে সচেতন এবং সাবধান করার চেষ্টা করেছে। জেলার বিভিন্ন মোড়ের রাস্তার উপরে করোনা ভাইরাস নিয়ে সতর্কতার ছবি এঁকেছে।

অন্যদিকে সিউড়ি শহরে নজরদারি করতে শনিবার ড্রোন ক্যামেরা ব্যবহার করা হয় পুলিশের পক্ষ থেকে। গত শুক্রবার রাতে সিউড়ী শহর জুড়ে পুলিশ আধিকারিকরা বাইক নিয়ে নজরদারি করে। বীরভূম জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুবিমল পাল বলেন,” অতি প্রয়োজনীয় বিষয় বা কারণ ছাড়া যেকোনো ধরনের গাড়ি নিয়ে এখন রাস্তায় বেড় হলেই তাকে বাজেয়াপ্ত করা হবে। লকডাউন উঠে গেলে বাজেয়াপ্ত গাড়ি মালিককে ফেরত দেওয়া হবে”।

image.png