টিডিএন বাংলা ডেস্ক: বিজেপি মারলে তাদেরও হাত-পা ভেঙে দিন, এমনই বিতর্কিত মন্তব্য করলেন শ্রীরামপুরের তৃনমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। শনিবার জাঙ্গিপাড়ায় জনসভা করে নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, যদি বিজেপি আপনার হাত-পা ভাঙে, তাহলে আপনারাও বিজেপির হাত পা ভেঙে দিন। তৃণমূল সাংসদ বলেন, যদি তাও না পারেন তো জলে ডুবে মরুন। কু-কথার বাণ ছেড়ে তিনি প্রবলভাবে সমালোচিতও হলেন।

এদিন কল্যাণবাবু দলত্যাগীদের উদ্দেশ্যে বলেন, “যাঁরা দল ছেড়ে চলে গিয়েছেন, মনে করবেন বদ রক্ত চলে গিয়েছে। আসলে যাঁরা মাল খেয়েছে তারাই ভয় পেয়ে দল ছেড়ে চলে গিয়েছেন। আর যাঁরা দলে থেকে লড়াই করছেন তাঁরাই সম্পদ। আগামী দিনে তাঁদের নিয়েই দল লড়বে।”

পাশাপাশি মারের বদলা মারের নির্দেশ দিয়ে দলীয় কর্মীদের কার্যত তাতিয়ে দিলেন সাংসদ। বললেন, “বিজেপি যদি আপনার হাত পা ভাঙে তবে আপনারাও বিজেপির হাত পা ভাঙুন। আর যাঁরা ভয় পাবেন, তাঁরা পদ ছেড়ে দিয়ে বাড়িতে গিয়ে বসে থাকুন।” ‘শোলে’ সিনেমার সেই বিখ্যাত সংলাপ বলে সাংসদ বলেন, “যো ডর গয়া ও মর গয়া। ভয় পেলে জলে ডুবে মরুন।” এইভাবেই দলীয় কর্মী সমর্থকদের আগামী দিনের রাজনৈতিক লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দিলেন সাংসদ।

এদিনের জনসভায় সাংসদ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন হুগলি জেলা তৃণমূলের সভাপতি দিলীপ যাদব, জাঙ্গিপাড়ার বিধায়ক স্নেহাশিস চক্রবর্তী, জেলা পরিষদের পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ সুবীর মুখোপাধ্যায় প্রমুখ।

বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্তব্যের কড়া সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, এসব কথা হতাশা থেকে বলছেন কল্যাণবাবু। উনিও বুঝতে পেরে গিয়েছেন মানুষ আর ওঁদের সঙ্গে নেই। তাই উনি ওই ধরনের বেফাঁস মন্তব্য করে ফেলেছেন। কেননা আর গুন্ডাবাজি করে জিততে পারবে না তৃণমূল।