টিডিএন বাংলা ডেস্ক: নাটকীয়ভাবেই বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন কলকাতার প্রাক্তন মেয়ের শোভন চট্টোপাধ্যায়। বিজেপিতে যোগ আগে যেমন অনেক জল্পনা কল্পনা শুরু হয়েছিল, ঠিক তেমন যোগ দেওয়ার পরেও অনেক জলঘোলা হচ্ছে। তিনি বিজেপিতে যোগ দেওয়ার কদিন পরেই দলত‍্যাগ করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন। তবে তিনি এবার স্পষ্ট ভাবে হুশিয়ারি দিলেন, দেবশ্রী রায় যদি বিজেপিতে যোগ দেন তবে তিনি গেরুয়া শিবির থেকে পদত্যাগ করবেন। এর আগে রাজ্যের বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন যে দেবশ্রী রায় দলে যোগ দেবেন কি না সে বিষয়ে দল সিদ্ধান্ত নেবে এবং তিনি কোনও ব্যক্তির নির্ধারিত কোনও নির্দেশনা বা শর্ত অনুযায়ী চলবেন না। দিলীপ ঘোষের এই কথার পাল্টা হিসাবেই শোভন চট্টোপাধ্যায়ের ওই মন্তব্য বলে মনে করা হচ্ছে। সর্বশেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী সোমবার গভীর রাতে ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) নেতা মুকুল রায় নয়াদিল্লিতে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠক করেছেন এবং দাবি করেছেন যে “এখনও পর্যন্ত দল ছাড়ছেন না” ঘাসফুল থেকে সম্প্রতি পদ্মের জমিতে আসা শোভন।

শনিবার তাঁর ঘনিষ্ঠ সহযোগী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় দাবি করেছিলেন যে, প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক শোভন চট্টোপাধ্যায় ১৪ অগাস্ট বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই “নিয়মিত ভাবে অপমানিত” হওয়ায় গেরুয়া শিবির ছাড়তে চাইছেন।

বিজেপি সূত্র মারফৎ খবর, সোমবার রাতে শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়, উভয়ের সঙ্গেই নয়া দিল্লিতে ম্যারাথন বৈঠক করেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়।

“দলীয় নেতৃত্ব আমাকে শোভন ও বৈশাখীর সঙ্গে দেখা করতে বলেছিল, এবং আমরা বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছি … কিছুটা ভুল বোঝাবুঝি হতে পারে। সব কিছু ঠিকঠাক রয়েছে এবং আমি পরিষ্কার করে তাঁদের জানিয়েছি যে তাঁরা দলের কাছে অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ এবং তাঁরা এখনও পর্যন্ত দলেই থাকছেন, দল ছাড়ছেন না”, সাংবাদিকদের বলেন মুকুল রায়।

শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গেই বিজেপিতে যোগ দেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ও। কলকাতার প্রাক্তন মেয়র জানান, তিনি “বড় ভাই” মুকুল রায়ের সঙ্গে সমস্ত বিষয়ে বিশদে আলোচনা করেছেন।

তবে কলকাতায় ফিরে আসার পরেই আবার শোভন চট্টোপাধ্যায় সংবাদসংস্থা পিটিআইকে বলেন যে দেবশ্রী রায় যদি গেরুয়া শিবিরে যোগ দেন, তিনি সঙ্গে সঙ্গে বিজেপি থেকে পদত্যাগ করবেন।

বিজেপি সূত্র মতে, শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় সম্প্রতি বিজেপির জাতীয় সাধারণ সম্পাদক এবং পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির পর্যবেক্ষর কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র সঙ্গে দেখা করে দল ছাড়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন। দু’বারের তৃণমূল বিধায়ক দেবশ্রী রায় বিজেপিতে যোগ দিতে চাইছেন এমন সম্ভাবনায় দুজনেই বিচলিত হয়েছেন বলে মনে করা হচ্ছে।

অভিনেতা-রাজনীতিবিদ দেবশ্রী রায়ও ১৪ অগাস্ট নয়াদিল্লিতে বিজেপি সদর দফতরে যান। তিনি বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন বলে একটা সম্ভাবনার কথা উঠে আসে তখনই। এই প্রসঙ্গে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, দেবশ্রী রায় দলে যোগ দিলে তাঁর কোনও আপত্তি নেই। এরপরই জটিল হয় পরিস্থিতি। এখন দেখার, শোভন-দেবশ্রী জট ছাড়াতে কোন পথে হাঁটে গেরুয়া শিবির।