নিজস্ব সংবাদদাতা, টিডিএন বাংলা, কলকাতা : মুর্শিদাবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের দাবিতে ফের সরব এসআইও। এবার ‘করবো অথবা মরবো’ ডাক আন্দোলনে নামছে সংগঠনটি। এসআইও-র প্রাক্তন ক্যাম্পাস সেক্রেটারি মুহাম্মদ আজহারউদ্দিন টিডিএন বাংলাকে এই খবর জানান। এসআইও-র পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, এবারের আন্দোলন আরও জোরালো হবে।


সংগঠনটি বলছে, দীর্ঘ বঞ্চনার ইতিহাসের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের অন্যতম জেলা হল মুর্শিদাবাদ। স্বাধীনত্তোর
ভারতবর্ষে এই জেলা তার অতীত গৌরব হারিয়েছে। শিক্ষা,স্বাস্থ্য, শিল্প, ব্যবসা একথায় জাতিগঠনের কোনো মেরুদন্ড এই জেলায় ভিত্তি স্থাপন করতে পারেনি। ডান-বাম, লাল-সবুজ সব শাসকেরই বঞ্চনার চক্রান্তের স্বীকার এই জেলা। যে জেলাকে দেখে লর্ড ক্লাইভের  মত ব্রিটিশ শাসক ও ভূয়শী প্রশংসা করে বলেছিল মুর্শিদাবাদ লন্ডনের গৌরবকেও হার মানাবে।  সেই গৌরব আজ ভূলুন্ঠিত। সবচেয়ে লজ্জাজনক ও হতাশাজনক বিষয় হল আজ পর্যন্ত এই জেলায়  একটিও বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে ওঠেনি। এই জেলার খেটে খাওয়া শ্রমজীবী ও নিম্ন-মধ্যবিত্ত পরিবারের ছেলেরা শুধুমাত্র সুযোগের অভাবে উচ্চশিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। বর্তমানে এই জেলা শ্রমজীবী মানুষের জেলাই পরিনত হয়েছে। এই জেলায়  ভালো মানের মেডিক্যাল কলেজ পর্যন্ত গড়ে ওঠেনি। অথচ এই রাজ্যের সমস্ত জেলায় বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে এমন কি কোনো জেলায় দুই-তিনটি করে বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে।

 

বীরভূম জেলায়  একটি কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয় থাকার পরও সম্প্রতি রাজ্য সরকার আরেকটি বিশ্ববাংলা নামে বিশ্ববিদ্যালয় তৈরী করছে। কেউ সাদা ভাত পাইনা আবার কেউ বিরিয়ানিও নস্ট করছে। দীর্ঘ ৪ বছর যাবৎ স্টুডেন্টস ইসলামিক অর্গানাইজেশন অফ ইন্ডিয়া লাগাতার আন্দলোন করেও রাজ্য সরকারে পক্ষ থেকে কোনো  সদর্থক ভূমিকা দেখা যায়নি। দিন দিন এই জেলার মানুষের ক্ষোভ চরমে পৌছে যাচ্ছে। এবং ভবিষ্যৎ -এ সেটা বৃহত্তর রুপ নিতে বাধ্য হবে।  জেলার বঞ্চনাকে মানুষ ভালোভাবে নিচ্ছে না। এই জেলার বঞ্চিত মানুষকে সাথে নিয়ে আবারও একট পূর্ণাঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় গঠেনের ডাক দিয়েছেএসআইও  যার ধাক্কা বিকাশভবন পর্যন্ত গড়াবে যা ‘করেঙ্গে ইয়ে মরেঙ্গে’ রুপ ধারন করবে।