তাই কুড়মি আদিবাসীরা পিতৃপরিচয় আদায়ে মহাসংগ্রামে অবতীর্ণ হয়েছে। বিদ্রোহের ঢেউ আছড়ে পড়েছে গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে, পড়াশি গাজাড় থেকে হাঁড়িশালে। ৬ই ফেব্রুয়ারি রেল অবরোধের ডাক দিয়েছে বাংলা, ঝাড়খণ্ড,উড়িষ্যা তিন রাজ্যে। চারিদিকে চলছে মিছিল, মিটিং, পথসভা, মাইক প্রচার। বিশিষ্ট শিক্ষক রজ্ঞিত কুমার মাহাত বলেন- “৭০ বছরের জমানো ক্ষোভ আজ আগ্নেয়গিরি র রূপ নিয়েছে, লাভা উদ্গিরন হবেই।” যুব নেতা উত্তম মাহাতর কথায়- ‘কোন রিপোর্টের দরকার নাই, আমাদের দেখলে লোকে আদিবাসী বলবে। আমরা চিরকাল আদিবাসী, কেন যে সরকার ৭০ বছর ধরে পরিচয়হীন করে রেখেছে জানি না।লড়ে চলেছি এর শেষ দেখেই ছাড়ব।’