নিজস্ব সংবাদদাতা, টিডিএন বাংলা, মুর্শিদাবাদ: তৃণমূলের মুর্শিদাবাদ জেলা চেয়ারম্যান সুব্রত সাহার গড়েই লজ্জাজনক ভাবে হেরে গেল তৃণমূল কংগ্রেস। প্রায় সবকটি আসনেই জয়ী হয়ে চমক দিলো বিজেপি। লোকসভা ভোট শেষ হতেই সাগড়দিঘি তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের কর্মী নির্বাচনে মোট ১৭ টি আসনের মধ্যেও একটিও পেল না তৃণমূলের শ্রমিক সংগঠন। বিজেপির শ্রমিক সংগঠনে ভারতীয় মজদুর সঙ্ঘের ঝুলিতে এসেছে ১৫ টি। বাকি দুটো আসন পেয়েছে সিটু। সাগড়দিঘি বিধানসভা এলাকায় তৃণমূলের বিধায়ক তথা মুর্শিদাবাদ জেলা চেয়ারম্যান এর আসনেই এই হারে প্রশ্নের মুখে জেলা নেতৃত্ব। দীর্ঘদিন দাপট দেখিয়ে আসা সাগড়দিঘি পিডিসিল এ কি কারনে এই হার তা নিয়ে বেজায় চিন্তিত তৃণমূল।

উল্লেখ করা যেতে পারে, সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে জঙ্গিপুর লোকসভায় বাম কংগ্রেস কে পিছনে ফেলে বিপুল ভোট পেয়ে দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসে বিজেপি।যদিও সেখানে তৃণমূল প্রার্থী খলিলুর রহমানই শেষ পর্যন্ত জয়ী হয়। কিন্তু লোকসভা শেষ হতেই সাগড়দিঘি পিডিএলসিএল কর্মীদের নির্বাচন এ এহেন ভরাডুবিতে দলের গোষ্ঠী দ্বন্দকেই দায়ী করছেন সংগঠনের শ্রমিক নেতা সমরেন্দ্রনাথ পর্বত। এদিনের নির্বাচনে ৭৬৪ জন কর্মীর প্রত্যেকেই ১৭ জন করে প্রতিনিধি নির্বাচন করতে ভোট প্রদান করেন। সর্বোচ্চ ভোট পান অয়ন দাস এবং সুরজিৎ পাল। তাদের প্রাপ্ত ভোট ৩৬৫ ও ৩৩৮। অন্যদিকে তৃণমূল সংগঠনের সর্বোচ্চ ভোট ২৪২। সোমবার ভোট গ্রহণ হয়। এদিন রাতেই গণনা পর্ব সম্পন্ন হয়।

পিডিসিএল নির্বাচনে লজ্জাজনক হারের পরেই একে অপরের দিকে কাদা ছোড়াছুড়ি শুরু হয়েছে তৃণমূলের মধ্যেই।