নিজস্ব সংবাদদাতা, টিডিএন বাংলা, কলকাতা: টয়লেট লাইট তাঁবু ব্যবহারের অনুমতি মিলতেই আন্দোলন করার খুশি দেখা গেল পার্কসার্কাসের মহিলাদের মধ্যে। সিএএ, এনআরসি ও এনপিআর বিরোধী আন্দোলনের নারীরা বলছেন, কলকাতা পুরসভা আমাদের দাবি মেনে নেওয়ায় খুশি। নারী নেত্রী উজমা আলম টিডিএন বাংলাকে জানান, খুব কষ্ট হয়েছে এই কয়দিন। কিন্তু প্রশাসন অনুমতি দিতেই তাঁবু খাটানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতেই এসেছে বায়োটয়লেট, আলো জ্বলছে।

জানা গেছে, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় স্বয়ং মহিলাদের অসুবিধার কথা জেনেছিলেন। তারপর তিনি মানবিক দৃষ্টিতে বিষয়টি দেখেন। আন্দোলনকারী এক মহিলা এই প্রতিবেদককে জানান, কলকাতা পুরসভার মেয়র ফিরহাদ হাকিম বলেছেন, যা লাগবে বলবেন, কোনও সমস্যা হবেনা।

এদিকে পার্কসার্কাসে দিনের পর দিন ভিড় বাড়ছে। কলকাতার নারীরা এতে অংশ নিচ্ছেন। বিভিন্ন নাগরিক সমাজের লোক এখানে আসছেন। সেই সঙ্গে বিভিন্ন সংগঠন ও ব্যক্তি আসছেন। দলিত নেতা চন্দ্র শেখর আজাদের ভীম আর্মি এসেছে।
রিপন স্ট্রিটের ফারহাদ ইসলাম জানান, নারীরা আজ হেঁসেল ছেড়ে পথে। ভেবেছেন এমনি এমনি এখানে এসেছে? না, আমরাও রাজনীতির কিছু বুঝি। সংবিধান ধ্বংস করে মেরুকরণের রাজনীতি করার চক্রান্ত বরদাস্ত হবেনা। অবিলম্বে সিএএ প্রত্যাহার হোক। এনআরসি, এনপিআর কেন করবে? মানুষকে বেনাগরিক করবে? সেটা মানা হবেনা। ব্যারাকপুর নৌসিনার মতে, এমন অনেক নারী আছেন যারা এই প্রথম পথে নেমেছে। অনেকে নতুন বিয়ে করে আন্দোলনে নেমেছে। এটা দেশ বাঁচানোর লড়াই, সংবিধান রক্ষার লড়াই। এ লড়াইয়ে আমাদের জিততে হবে।