নিজস্ব সংবাদদাতা, টিডিএন বাংলা, কলকাতা : আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের যদি মুক্তি না দেওয়া হয় তবে পুলিশ কমিশনারের দপ্তর ঘেরাও করার হুমকি দিলেন সারা বাংলা সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ কামরুজ্জামান। তিনি শুক্রবার নিজের ফেসবুকে একটি পোষ্ট করে মন্তব্য করেন, “আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনকারী ছাত্ররা আগামী কাল ১৯ আগস্ট ২০১৭ বারাসত কোর্ট থেকে মুক্তি না পেলে আগামী ২১ আগস্ট সোমবার বিধাননগর পুলিশ কমিশনারের দপ্তর ঘেরাও অভিযান করা হবে।”

ওই যুব নেতার আরও মন্তব্য, “আন্দোলনকারী ছাত্ররা সমাজবিরোধী নয়, যে তাদের জেলে আটক করে রাখতে হবে।”

এদিকে আলিয়ার ছাত্রদের গ্রেপ্তারের প্রতিবাদ জানিয়েছে সব পক্ষ। এপিডিআর তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে। বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠনের নেতারা মুখ খুলছেন। আলিয়া ইউনিভার্সিটির প্রাক্তন ছাত্ররা উপাচার্যের কাছে দ্রুত বন্দি ছাত্রদের মুক্তির দাবি জানিয়েছে। এদিকে ইসলামি ছাত্র সংগঠন এস.আই.ও পশ্চিমবঙ্গ শাখার রাজ্য সভাপতি ওসমান গনি সংগঠনের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, “আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়কে যে লক্ষ্য-উদ্দেশ্য নিয়ে গঠন করা হয়েছিল সেগুলি পুরন করার ব্যাপারে রাজ্য সরকার ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে আরও বেশী দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে। আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বকীয়তা বজায় ও সার্বিক উন্নয়নের ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে বিশেষ নজর দিতে হবে।”


সংগঠনের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক ইমাম হোসেন বলেন, “আন্দোলনকারী ছাত্রছাত্রীদের অবস্থান বিক্ষোভের উপর পুলিশি লাঠিচার্জকে তীব্র ভাষায় নিন্দা জানাচ্ছি। ছাত্রছাত্রীদের উপর বর্বর পুলিশি আক্রমণ কোনভাবেই সমর্থনযোগ্য নয়। শুধু তাই নয় গ্রেফতারকৃত ছাত্রদের অবিলম্বে মুক্তি দিতে হবে। সেই সাথে আন্দোলনকারী ছাত্রছাত্রীদের ন্যায্য দাবীর ব্যাপারে তাদেরকে ইতিবাচক, গণতান্ত্রিক ও সহযোগিতামূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করা উচিত।”