প্রশান্ত দাস, টিডিএন বাংলা, মালদা : কংগ্রেস ক্ষমতায় আসলে দেশের প্রত্যেকটা ব্যক্তির জন্য ন্যূনতম রোজগার গ্যারান্টি চালু করবে সরকার। এই স্কিমে প্রত্যেক মানুষের একাউন্টে সরাসরি টাকা দেবে সরকার। শনিবার দুপুরে উত্তর মালদার চাঁচলে নির্বাচনী প্রচার এসে এই ঘোষণা করেন সর্বভারতীয় কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী।

মিনিমাম ইনকাম গ্যারান্টি স্কিম বিষয়ে রাহুল গান্ধী বলেন, কংগ্রেস ক্ষমতায় আসলে সরকার দেশের প্রত্যেকটি মানুষের ন্যুনতম রোজগারের একটি রূপরেখা তৈরি করবে। সেই অনুযায়ী যাদের ইনকাম সরকার নির্ধারিত টাকার তুলনায় কম হবে বাকি টাকা কেন্দ্র সরকার নাগরিকদের অ্যাকাউন্টে সরাসরি দেবে।

এদিনের সভায় রাহুল আরও বলেন, এবারের নির্বাচন দুটি আদর্শ নির্বাচন। একদিকে কংগ্রেস দেশের সমস্ত জাতি ধর্মের লোককে নিয়ে চলতে চায়, কিন্তু বিজেপি এবং আরএসএস মানুষে মানুষে বিভেদ করে তারা বিভাজনের রাজনীতি করতে চাইছে। তিনি বলেন, নরেন্দ্র মোদি তার ভাষণে মিথ্যে কথা বলে বছরে ২ কোটি যুবকের রোজগারের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন মোদি কিন্তু তিনি সেই কথা রাখেননি।

প্রধানমন্ত্রী মাত্র ১৫ দিনের সাড়ে তিন লক্ষ কোটি টাকা ঋণ মাপ করেছেন। কিন্তু কেন্দ্র সরকার এবং রাজ্য সরকার কেউই কৃষক অথবা ছোট ব্যবসায়ীদের ঋণ মাফ করেনি। মধ্যপ্রদেশ ছত্তিশগড় রাজস্থানে কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার দুই দিনের মধ্যেই কৃষকদের ঋণ মাপ করেছে। কেন্দ্রে ক্ষমতায় আসলে গোটা দেশের কৃষকদের ঋণ মাপ করা হবে রাফাল প্রসঙ্গে মোদি সরকার কে এদিনও এক হাত নিয়ে রাহুল গান্ধী বলেন, রাফাল কেনার ক্ষেত্রে অনিল আম্বানি কে ৩০হাজার কোটি টাকা পাইয়ে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। কংগ্রেসের সময় প্রতিটি যুদ্ধ বিমানের দাম ৫২৬ কোটি টাকা ধার্য হয়েছিল কিন্তু প্রধানমন্ত্রী নিজে তাতে মধ্যস্থতা করে দাম অনেক বেশি করে দেখিয়েছেন। এমনকি ভারত সরকারের সংস্থা রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব না দিয়ে অনিল আম্বানি কে সংস্থার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

এদিনের ভাষণে উত্তরবঙ্গের বিদায় সংসদ মৌসম বেনজির নূর এর নাম না করে রাহুল গান্ধী বলেন, এক ব্যক্তি ধোঁকা দিয়েছেন। তিনি কংগ্রেসের পুরনো ক্যান্ডিডেট ছিলেন তিনি চাপে এবং ভয়ে দল ছেড়েছেন। কিন্তু ধোঁকা দিয়ে বাংলায় কোন কাজ হয়না। মালদার মাটি কংগ্রেসের পুরনো ঘাঁটি। এখানে মানুষ ফের কংগ্রেসকেই জয়ী করবে।

বেকারত্ব প্রসঙ্গে রাহুল গান্ধী সরকারকে আক্রমণ শানিয়ে বলেন, গত পাঁচ বছরের মধ্যে ৪৫ বছরে সবচেয়ে বেশি বেকারত্ব বৃদ্ধি পেয়েছে। কংগ্রেস ক্ষমতায় আসলে প্রতিটি সহকারী পদে কর্মী নেওয়া হবে। তিনি বলেন, মালদার আম এবং রেশম বিখ্যাত। কংগ্রেস ক্ষমতায় আসলে এখানে প্রসেসিং এর ফ্যাক্টরি করা হবে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে এক হাত নিয়ে রাহুল বলেন, এখানে এক ব্যক্তি সরকার চলছে। তিনি কারও কথা শোনেন না মানেনও না। রাজ্য সরকার বাংলার উন্নয়নের জন্য কিছুই করেনি। কংগ্রেস সরকার ক্ষমতায় এলে এখানকার মানুষের সার্বিক উন্নয়ন করবে।