Ayatollah Faruk Molla
রেবাউল মন্ডল, টিডিএন বাংলা, কলকাতা: প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া না হলে ধর্ষণ কমবে না। এমনই চাঞ্চল্যকর মন্তব্য করলেন আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্সের অধ্যাপক আয়াতুল্লা ফারুক মোল্লা। রবিবার টিডিএন বাংলাকে দেওয়া একান্ত সাক্ষাতকারে তিনি এই মন্তব্য করেন।
তাঁর মতে, “বারো বছরের নীচে শিশুদের ধর্ষকদের ফাঁসি হবে আর বড়দের ক্ষেত্রে সাজা কম হবে এমনটি হতে পারেনা। সমস্ত বয়সের নারীদের নিরাপত্তার স্বার্থে সকল প্রকার ধর্ষকদেরই প্রকাশ্যে মৃত্যুদন্ডের সাজা হওয়া উচিত। যাতে এ ধরণের প্রবনতাকারীদের মনে ত্রাসের সৃষ্টির হয়।”
দেশে ধর্ষণের মত নাক্ক্যার জনক ঘটনা ক্রমশই বাড়ছে কেন এবিষয়ে তিনি বলেন, এমন অমানবিক ঘটনা প্রমাণিত হবার পরও এদেশে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা নেই। ফলে সাধারণ হয়ে গেছে এমন মানবতা বিরোধী সব ঘটনা। যেসমস্ত দেশে ধর্ষনের ঘটনায় কঠোর শাস্তি প্রদানের আইন চালু আছে সেখানে ধর্ষণ কম। অপরাধ প্রমাণিত হলেই প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ডের ব্যবস্থাও চালু আছে সেখানে।
ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে এদিন তিনি বলেন, নারীদের যথাযোগ্য সম্মান দিতে পারছে না আমাদের সমাজ। তাদের ভোগ্যপণ্য হিসেবে দেখানো হচ্ছে বিভিন্ন ভাবে। তাদের সৌন্দর্যকে ব্যবসায়িক মনোভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে।
যার জেরেই অনেক সময় লাঞ্চিত হচ্ছে আমাদের মা বোনেরা। রাজনৈতিক উদ্দেশ্যেও অনেক সময় ধর্ষণের ঘটনা ঘটছে। বিরোধীপক্ষের শিশুদের ধর্ষণ করে হত্যা করে তাদের মনে ভয় সৃষ্টি করার প্রবণতাও থাকতে পারে বলে তিনি জানান।
ধর্ষণের ঘটনা আগেও ঘটেছে। কিন্তু সেখানে ধর্ষকদের সমর্থনে কখনো জাতীয় পতাকা হাতে মিছিল করতে দেখা যায়নি। যার জেরেই বিদেশের মাটিতে দেশের সম্মান তলানিতে ঠেকেছে বলেও তিনি মনে করেন। তিনি বলেন, ধর্ষণের মত মানবতার লজ্জাজনক কর্মকান্ডের জন্য যুব সমাজকেই এগিয়ে আসতে হবে। তাদের মধ্যে নৈতিক শিক্ষার চেতনার বিকাশ ঘটাতে হবে।