টিডিএন বাংলা ডেস্ক : একাধিক অভিযোগের ভিত্তিতে শুক্রবার বেকার হোস্টেলের সুপার পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল অধ্যাপক দাবির আহমেদকে। তাকে বরখাস্তও করেছে হোস্টেলের উর্ধ্বতম কর্তৃপক্ষ। অন্যান্য রাজ্যের মত ডেঙ্গু ও অজানা জ্বরের মতো মারন রোগের স্বীকার, হোস্টেলের ছাত্ররাও। ইতিমধ্যে ১৫ জন ডেঙ্গু, অজানা জ্বর ও ম্যালেরিয়াই আক্রান্ত হয়ে হোস্টেল ছাড়া হয়েছে। হোস্টেল সুপার কোনো উদ্যোগ নেয়নি হোস্টেল চত্বর পরিষ্কার করার। এর আগে, ছাত্ররা হোস্টেল চত্বর পরিস্কার করার আবেদন জানাই সুপারের কাছে। অধ্যাপক দাবির আহমেদ কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় ছাত্ররা অভিযোগ নিয়ে মৌলানা আবুল কালাম আজাদ কলেজের অধ্যক্ষের  দারস্থ হয়।


আজাদ কলেজের অধ্যক্ষের কাছে নালিশ জানানোর অপরাধে বহিরাগতদের  দিয়ে আবাসিক ছাত্র দের মারধর করানোর অভিযোগ ওঠে হোস্টেল সুপারের বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার তারই জেরে জোরালো বিক্ষোভ শুরু করে এবং সুপার অধ্যাপক দাবির আহমেদের  পদত্যাগের দাবি করে।


খবর পেয়ে শুক্রবার হোস্টেল পরিদর্শন করতে আসে উচ্চশিক্ষা প্রতিনিধি দল। সেখানে অধ্যক্ষ ও ছাত্রদের নিয়ে বৈঠকে বসেন প্রতিনিধিদল।ছাত্ররা সুপারের বিরুদ্ধে নানান অভিযোগ তুলে এবং দ্রুত বরখাস্ত করার দাবি জানান। তারপরই অধ্যক্ষ বিজয়কৃষ্ণ রাই কে অস্থায়ী ভাবে সুপারের দায়িত্ব দিয়ে অধ্যাপক দাবির আহমেদকে বখাস্তও করা হয়।
কিন্তু হোস্টেল সুপার দবির আহমেদ টিডিএন বাংলাকে বলেন,”আমার কাছে এই রকম কোনও খবর নেই। আমিতো জানিনা, আমাকে সরানো হয়েছে বলে।”