নিজস্ব সংবাদদাতা, টিডিএন বাংলা, কলকাতা : রবিবার গড়িয়ার অনুকূল চন্দ্র হাই স্কুলে রোহিত ভেমুলার স্মরণ সভায় দেশে দলিত নির্যাতন নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন একাধিক সংগঠনের নেতারা। জয়ভীম নেটওয়ার্কের নেতা শরদিন্দু উদ্দীপন বলেন,’২০১৬ সালের ১৭ই জানুয়ারি ঘৃণ্য জাত ব্যবস্থার বলি হতে হয়েছিল হায়দরাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ছাত্র রোহিত ভেমুলাকে। মৃত্যুর আগে রোহিত ভেমুলার চিঠির  মধ্যে প্রতিধ্বনিত হয়েছে ভারতের সেই ঘৃণ্য ব্যবস্থার কথা যা জাতপাত, ছোঁয়াছুঁয়ি ও ভেদভাবের নিগড়ে বাঁধা। রোহিত ভেমুলার প্রাতিষ্ঠানিক হত্যা এবং তার পরবর্তীকালের ঘটনা প্রবাহ দেশবাসীকে  বুঝিয়ে দিয়েছে যে ভারতবর্ষে সামাজিক ব্যবস্থার মধ্যে এই ঘৃণ্য জাতপাতের শিকড় কতটা গভীরে প্রথিত। একটি স্বৈরাচারী এবং ফ্যাসিবাদী শাসন ব্যবস্থার অনুকূল পরিবেশে এই জাত ব্যবস্থা কতটা ধ্বংসাত্মক হতে পারে তার নমুনা আমরা সমগ্র ভারতবর্ষের আর্থ-সামাজিক-রাজনৈতিক ও ধর্মীয় ক্ষেত্রে দেখতে পাচ্ছি।”

এদিনের সভায় উপস্থিত ছিলেন  প্রকৃতি সেবাশ্রম সঙ্ঘের সভাপতি মিলন নির্ঝর মৃধা, বিজ্ঞানী পার্থ সারথি রায়, চিত্র নির্মাতা সুমিত চৌধুরী, অধ্যাপক নুরুল হক, আইনজীবী আনিসুর রহমান,দলিত নেতা পরেশ দেবনাথ প্রমুখ। রোহিত ভেমুলা ও নাজিবের মা যেভাবে ছেলের জন্য বিচার চেয়ে পথে পথে ঘুরছে তা একবিংশ ভারতের জন্য লজ্জার বলেও মন্তব্য করেন বিভিন্ন বক্তা।

এদিন আম্বেদকরের আদর্শ, বর্তমান দলিত আন্দোলন নিয়েও আলোচনা হয়। বক্তাদের অভিযোগ, প্রায় সব সরকার দলিত আদিবাসী ও সংখ্যালঘু মুসলিমদের ভোট ব্যাংক হিসাবে ব্যবহার করেছে। কোনও সরকার এই সমাজটাকে মূল স্রোতে আনার জন্য প্রয়োজনীয় প্রকল্প নেয়নি। ভবিষ্যতে বাংলায় দলিত আন্দোলন জোরদার করার উপর জোর দেন বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা।