কৌশিক সালুই, টিডিএন বাংলা, বীরভূম : সরকারী হাসপাতালের ঢিল ছোঁড়া দুরত্বেই এক সদ্যজাত শিশু সন্তানের মৃত দেহ উদ্ধারের ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে সিউড়ি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল সংলগ্ন এলাকায়। কে বা কারা এই কাজ করেছে না হাসপাতালের গাফিলতিতে এই ধরনের অমানবিক ঘটনা ঘটেছে তার তদন্ত শুরু করেছে সিউড়ি থানার পলিশ।

একদিকে সিউড়ি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের পাশেই সেচ দপ্তরের ১নং গেট। শনিবার সকালে স্থানীয় বাসিন্দারা দেখেন সেচ দপ্তরের গেটের সামনেই একটি জিনিসকে নিয়ে কয়েকটি কুকুর টানা হিঁচড়া করছে। স্থানীয় বাসিন্দারা কাছে দেখতেই দেখে একটি সদ্যজাত শিশুর মৃতদেহ। শিশুটির সারা শরীর গজে মোড়া। শিশুটি কন্যা না পুত্র সন্তান সেটা পরিষ্কার নয়।

যদিও স্থানীয় বাসিন্দাদের অনুমান, শিশুটি কন্যা সন্তান হবার জন্যও এই ধরনের অমানবিক ঘটনা।এই বিষয়ে স্থানীয় বাসিন্দা ইমরান মোল্লা জানান,”আজ সকাল ১০ নাগাদ সেচ দপ্তরের গেটের সামনে একটি সদ্যজাত শিশুর মৃতদেহকে নিয়ে কতগুলি কুকুর টানা হেঁচড়া করছিল।আমরা দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দি পলিশ এসে মৃত দেহটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়।আমাদের অনুমান হয় তো কন্যা সন্তান হওয়ায় এইরকম ঘটনা ঘটানো হয়েছে।যদিও শিশুর শরীর গজ কাপড়ে মোরা ছিল তাই কন্যা সন্তান না পুত্র সন্তান সেটা স্পষ্ট নয়।”

প্রসঙ্গত, ঘটনাস্থলের ঠিক পাশেই রয়েছে সরকারী হাসপাতাল।আবার সরকারী হাসপাতালের কাছেই রয়েছে বেসরকারি নার্সিংহোম ।তাই আদৌ কেউ ফেলিয়ে গেছে না হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের গাফিলতিতে এই ধরনের মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে।তারই তদন্ত শুরু করেছে সিউড়ি থানার পুলিশ।