টিডিএন বাংলা ডেস্ক : তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেয়া মুকুল রায়কে বাচ্চা ছেলের সঙ্গে তুলনা করে তার শিক্ষাগত যোগ্যতা কম বলে কটাক্ষ করেছেন রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। শনিবার উত্তর ২৪ পরগণা জেলার হাবড়া এলাকায় সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি ওই মন্তব্য করেন। খবর পার্সটুডের। বিজেপি নেতা মুকুল রায় গত শুক্রবার কলকাতায় দলীয় এক সমাবেশে তৃণমূলের বিভিন্ন দুর্নীতি ও স্বজনপোষণের অভিযোগ করেন।

জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, ‘শিক্ষার মান যতটা থাকার দরকার ছিল মুকুল রায়ের ততটা নেই। সবাই তো আর শিক্ষিত হতে পারে না! যেসব কথা উনি বলেছেন তা বাচ্চা ছেলেরা বলে। ১০/১২ বছর বয়সী ‘খোকা’রা বলে। মুকুল বাবুর পরিপক্কতা ও শিক্ষাগত যোগ্যতা কম থাকার জন্য এসব কথা বলেছেন।’ প্রসঙ্গত, রাজ্য সরকার ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সবচেয়ে পরিচিত ব্র্যান্ড ‘বিশ্ববাংলা’কে বেসরকারি সংস্থা বলে উল্লেখ করে ওই সংস্থার মালিক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলে অভিযোগ করেন। মমতার ভাইপো ও তৃণমূলের প্রভাবশালী নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় হলেন এমপি। মুকুল রায়ের ওই মন্তব্যের পরে রাজনৈতিক ও প্রশাসনিক মহলে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়।

মুকুল রায়ের অভিযোগের সাফাই দিয়ে গতকালই রাজ্য সচিবালয় নবান্নে স্বরাষ্ট্রসচিব অত্রি ভট্টাচার্য বলেন, ‘এক জনসভায় মুকুল রায় বলেছেন বিশ্ববাংলা ব্র্যান্ডটি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ব্যক্তিগত সম্পত্তি। এটা একেবারেই ভুল এবং ভিত্তিহীন! বিশ্ববাংলা ব্র্যান্ড এবং লোগো সম্পূর্ণ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সৃষ্টি। উনি স্বেচ্ছায় ওই ব্র্যান্ড এবং লোগোটি রাজ্য সরকারকে দিয়েছেন।’ অভিষেকের আইনজীবী সঞ্জয় বসু বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে দ্রুত কঠোরতম আইনি পদক্ষেপ নেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। তৃণমূলের মহাসচিব ও শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় মুকুলকে কটাক্ষ করে বলেন, ‘চাটনিবাবু যতটুকু পড়াশোনা জানেন, তার মধ্যে থাকলেই ভাল হয়। কীসের কোম্পানি, কারা রেজিস্ট্রি করেছে, উপদেষ্টা কমিটিতে কারা আছে, উনি সেসবের কিছুই জানেন না!’ রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকও মুকুল রায়ের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে তাকে বাচ্চা ছেলেদের সঙ্গে তুলনা করে কটাক্ষ করেছেন। গতকাল থেকে মুকুল রায়ের মন্তব্যের পাল্টা বিবৃতি ও সমালোচনা শুরু হলেও এখনো পর্যন্ত বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের সাফাই মন্তব্য প্রকাশ্যে আসেনি।