নিজস্ব প্রতিনিধি, টিডিএন বাংলা, ফরাক্কা: অঙ্ক মানেই ভীতি। বেশিরভাগ পড়ুয়ার কাছে গণিত মানেই আতঙ্ক! অনেক অভিভাবকই ছেলেমেয়েদের এই অঙ্ক-আতঙ্ক নিয়ে বেশ সমস্যায় পড়েন৷ আর এই সমস্যার করার কথা ভেবে সেই অকারণ ভীতি দুর করে সহজ ও সিস্টেমেটিক নিয়মে পড়ুয়াদের গনিতের প্রতি আকর্ষণ বাড়াতে এগিয়ে এসেছেন অঙ্কের মাস্টারমশাই জানে আলম। মুর্শিদাবাদের নূর জাহানারা স্মৃতি হাই মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক গণিত বই লেখার উদ্যোগ নিয়েছেন। সমাজ সেবা ও মাদ্রাসার প্রশাসনিক দায়িত্ব পালনের সাথে সাথে তিনি ওই বই লেখার কাজও চালিয়ে যাচ্ছেন সমান তালে।

এবছর শিশু দিবসে তাঁর লেখা দ্বিতীয় শ্রেণীর জন্য ‘আমার গণিত’ বই প্রকাশিত হয়েছে জঙ্গিপুর লোক সভার সাংসদ খলিলুর রহমানের হাত দিয়ে। শিশুদের জন্য এটিই তার প্রথম প্রকাশিত গণিত বই। বইটির প্রকাশক ও বিক্রেতা ‘বর্ণমালা’। বইটিতে যোগ বিয়োগ, গুন ভাগ, টাকা পয়সার হিসাব থেকে জ্যামিতি কিংবা বিভিন্ন গাণিতিক পদ্ধতি সহজ ও স্পষ্ট উদাহরণ ও চিত্রের মাধ্যমে বর্ননা করা হয়েছে যা পড়ুয়া থেকে শিক্ষক ও অভিভাবকদের সহজেই বোধগম্য হবে বলে জানিয়েছেন লেখক।

কিন্তু হঠাৎ এই ভাবনা কেন? লেখক বলছিলেন, ‘বাংলা ইংরেজি আরবি যেমন ভাষা তেমনি গণিতও একটি নিজস্ব ভাষা। তাই গণিত ছাড়া আমাদের এক মুহূর্তও চলবে না। সকালে ঘুম থেকে ওঠে রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে পর্যন্ত ব্যবহারিক জীবনে গণিতের সঙ্গে আমরা ওতপ্রোতভাবে জড়িত। গণিত মানুষকে ব্যক্তি ও সামাজিক জীবনের নানান সমস্যা সমাধান করতে শেখায়। তাই আমি উদ্যোগ নিয়েছি আগামী প্রজন্মের পড়ুয়ারা যাতে হাসতে খেলতেই ভীতিমুক্ত হয়ে আনন্দের সাথে গণিতকে আত্মস্থ পারে।’

আগামী বছর প্রথম ও তৃতীয় শ্রেণির শিশুদের জন্যও এই বই প্রকাশ করতে চান লেখক। এইভাবে দশম শ্রেণী পর্যন্ত সিরিজ প্রকাশ করার ভাবনাও রয়েছে তাঁর। শিক্ষার্থীদের গণিত ভীতি দূর করতে শিক্ষক জানে আলম এর এই অভিনব উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন জেলার শিক্ষানুরাগীরা।