নিজস্ব সংবাদদাতা, টিডিএন বাংলা, মুর্শিদাবাদ: বিজেপির জঙ্গিপুরের প্রার্থী মাফুজা খাতুনের প্রচারে এলেন না কোনো রাজ্য ও কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। প্রচারের শেষ মুহূর্তে শনিবার ম্যাকেন্জি ময়দান থেকে রোড শো তে থাকার কথা ছিল বাংলার পর্যবেক্ষক তথা বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয় ও অভিনেত্রী রূপা গাঙ্গুলির। কিন্তু বুনিয়াদপুরে মোদির জনসভা শেষে রাস্তার প্রচুর জ্যাম হওয়ায় আসতে পারলেন না বলে বিজেপি সূত্রে জানানো হয়েছে। এর আগেও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মুক্তার আব্বাস নাকভির জনসভা করার কথা থাকলেও আসেননি তিনি। পরপর দুই বার ঘোষণা ও প্রচার করার পরেও কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব না আসায় হতাশ ও ক্ষুব্ধ বিজেপি কর্মীরা। যদিও জেতার আসায় ভোট প্রচারেহাল ছাড়েন নি বিজেপি প্রার্থী মাফুজা খাতুন।

উল্লেখ্য, সংখ্যালঘু অধ্যুষিত জঙ্গিপুর লোকসভায় বিজেপি প্রার্থী করেছে মাফুজা খাতুনকে। নাম ঘোষণার পর থেকেই চায়ে পে চর্চা থেকে শুরু করে জনসংযোগ এ ঝড় তোলেন মাফুজা। সম্প্রতি মাফুজার হয়ে জঙ্গিপুরে জনসভা করার কথা ছিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মোক্তার আব্বাস নাকভির। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী আসার কথা শুনে ম্যাকেন্জি ময়দানে ভিড় জমিয়েছিলেন বিজেপির হাজার হাজার কর্মী। কিন্তু হেলিপ্যাড নামার সমস্যার কারনে আসতে পারেননি বলে জানিয়েছিলেন বিজেপি নেতৃত্ব। হতাশ হয়ে বাড়ি ফিরতে হয়েছিল নেতাকর্মীদের। আজ শনিবার জঙ্গিপুরে বাংলার পর্যবেক্ষক তথা বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয় ও অভিনেত্রী রূপা গাঙ্গুলির রোড সো তে অংশগ্রহণ করার কথা। সোশ্যাল মিডিয়া থেকে শুরু করে মাইকিং নানান ভাবে প্রচার করে লোক জমানোর চেষ্টা করে বিজেপি। দুপুর একটায় আসার কথা থাকলেও ঘন্টা দুয়েক অপেক্ষা করার পর হুড খোলা গাড়িতে আসেন শুধুমাত্র বিজেপি প্রার্থী মাফুজা খাতুন। মাফুজার সাথে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব এসেছেন কি না তা উকি মেরে দেখার চেষ্টা করেন আমজনতা। কিন্তু দেখতে না পেয়ে হতাশ হয়ে যান কর্মীরা। মোদির জনসভা শেষে প্রচন্ড জ্যামের কারণেই আসতে পারে নি বলে জানানো হয় বিজেপির পক্ষ থেকে।

যদিও বিজেপির প্রচারে তাদের নেতৃত্ব না আসার কারন নিয়ে কটূক্তির সুর উঠেছে রাজনৈতিক মহলে। জঙ্গিপুরের ওয়েলফেয়ার পার্টির প্রার্থী এস কিউ আর ইলিয়াস জানান, অভিজিৎ তো বিজেপির আসল প্রার্থী ।মাফুজা প্রতীক মাত্র। তাই তার সভায় বিজেপি নেতৃত্ব না আসায় স্বাভাবিক। বাম তৃণমূল বিজেপির সাথে গোপনে বোঝাপড়ার প্রার্থী অভিজিৎ বলেও মন্তব্য করেন তিনি।