টিডিএন বাংলা ডেস্ক: নির্বাচন কমিশনকে চিঠি দিয়ে বিশেষ পর্যবেক্ষক আজয় নায়েকের অপসারণ দাবি করল তৃণমূল। ১০ বছর আগে বিহারে যে পরিস্থিতি ছিল, তেমনটা এখন বাংলায়। গতকাল রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা নিয়ে এই মন্তব্য করেছিলেন নায়েক।

কমিশনকে পাঠানো চিঠিতে তৃণমূল লিখেছে, দশ বছর আগে বিহারের সঙ্গে বাংলাকে তুলনা করে মন্তব্য করেছেন বিশেষ পর্যবেক্ষক অজয় নায়েক। তাঁর মন্তব্য সম্পূর্ণভাবে আপত্তিকর।     চিঠিতে তৃণমূলের দাবি, দ্বিতীয় দফায় বিক্ষিপ্ত কয়েকটি ঘটনা ছাড়া ভোট শান্তিপূর্ণ হয়েছে। তার ২দিন পর পর্যবেক্ষকের এমন প্রতিক্রিয়া গণতন্ত্রের পক্ষে কাম্য নয়। এটা অনভিপ্রেত ও আপত্তিকর। ২টি জেলায় মাত্র একটি বুথে পুনর্নির্বাচন হচ্ছে। কিন্তু ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে এমন মন্তব্য করে বসলেন বিশেষ পর্যবেক্ষক। ৯২ শতাংশ ভোটে কেন্দ্রীয় বাহিনী দেওয়ার ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে বিহারের প্রসঙ্গ তুলেছেন।

অজয় নায়েকের উপস্থিতিতে নিরপেক্ষভাবে ভোটগ্রহণ সম্ভব নয় বলে মনে করে তৃণমূল। চিঠিতে তারা লিখেছে, শান্তিপূর্ণ ও নির্বিঘ্ন ভোটদানের পথে ভয়ের পরিবেশ তৈরি করছেন বিশেষ পর্যবেক্ষক। আরএসএস ও বিজেপির সঙ্গে তাঁর রাজনৈতিক যোগ রয়েছে। রাজনৈতিক বসদের কথায় কাজ করেছেন। তাঁর পক্ষে নিরপেক্ষ হয়ে কাজ করাটা কতটা সম্ভব তা নিয়ে সন্দেহের অবকাশ রয়েছেন। রাজনৈতিক দলের মুখপাত্র হিসেবে কাজ করছেন নায়েক। সুষ্ঠু ভোটের লক্ষ্যে তাঁকে অবিলম্বে সরানো হোক।

এদিন অজয় নায়ক বলেছেন,  ১০ বছর আগে বিহারের যে পরিস্থিতি দেখেছিলাম, সেটাই এখন পশ্চিমবঙ্গে ঘটছে। সে কারণেই এত কেন্দ্রীয় বাহিনী ব্যবহার করতে হচ্ছে। এই মুহূর্তে পশ্চিমবঙ্গের পরিস্থিতি গণতন্ত্রের পক্ষে শুভ নয়। এত আধা সেনা মোতায়েন করে ভোটগ্রহণ অভিপ্রেত নয়।