নিজস্ব সাংবাদাতা, টিডিএন বাংলা, মালদা :
জুন মাসের তৃতীয় সপ্তাহেও দেখা নেই বর্ষার। তীব্র রোদ আর ভ্যাপসা গরমের জেরে চরম সমস্যায় পড়েছেন পাটচাষীরা। বৃষ্টির অভাবে জমিতেই সুকাচ্ছে পাট। চিন্তায় মাথায় হাত পড়েছে পাট চাষীদের। প্রকৃতির এই খামখেয়ালিপনায় দিশেহারা মুর্শিদাবাদ, মালদার পাট চাষীরা। শুধু পাটই নয়, এই সময় মাঠে থাকা ভুট্টা এবং সব্জি নিয়েও বেকায়দায় পড়েছেন চাষিরা।

মালদার পাট চাষী মোঃ শামসুদ্দিন, তরুণ সিংহ, আশরাফ আলীরা জানান, এই বছরে বৃষ্টি নেই। তীব্র রোদ আর তাপে জমিতেই পাট গুলো শুঁকিয়ে যাচ্ছে। বড় তো হচ্ছেই না বরং পাট গুলো পুড়ে লাল ও নুইয়ে যাচ্ছে। আশরাফুল হক নামে এক পাট চাষী কান্নার সুরে বলেন, আমি কিছু দিন আগেই প্রচুর টাকা লোন নিয়ে মেয়ের বিয়ে দিয়েছি। পাট বিক্রি করে শোধ করার পরিকল্পনা থাকলেও যা অবস্থা তাতে ভিটেমাটি বিক্রি করতে হবে!

শুধু মালদায় নয়, একই চিত্র মুর্শিদাবাদেও। জেলার এক পাট চাষী কালাম সেখ বলেন, এই বছর বৃষ্টির পরিমান খুব কম হওয়ায় পাটের এই সমস্যা দেখা দিয়েছে। জমিতেই পাট গুলো শুকিয়ে যাচ্ছে। এখন পাট গাছের উচ্চতা সাড়ে তিন থেকে চার চার ফুটের মতো। পাট গাছের উচ্চতা মোটামুটি সাত ফুটের মতো না হলে চাষিরা ঠিকমতো দামও পাবেন না। বৃষ্টির এভাবে পাটের আঁশ পাতলা হবে।