টিডিএন বাংলা ডেস্ক : দেশের বিভিন্ন প্রান্তে একের পর এক বাঙালিরা কাজে গিয়ে খুন হচ্ছে। আবারো অসমে খুন হলেন ২ বাঙালি। দুই ব্যক্তিই পূর্ব মেদিনীপুরের পাঁশকুড়ার বাসিন্দা। একজনের বাড়ি গোপালপুরে অন্যজন গড় পুরুষোত্তমপুরের বাসিন্দা। সূত্রের খবর, দুজনেই মাস দেড়েক আগে অসমে রাজমিস্ত্রির কাজে গিয়েছিলেন। ঘটনায় আরও দুই ব্যক্তি গুরুতর আহত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। নিছকই কোনো বিবাদের জেরে খুন নাকি পিছনে রয়েছে এনআরসি, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে রাজনৈতিক মহলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মাস দেড়েক আগে ঠিকাদারের অধীনে রাজমিস্ত্রির কাজ করতে অসমের দুমদুমে গিয়েছিলেন পাঁশকুড়ার বেশ কয়েকজন। এরমধ্যে দুই ব্যক্তিকে হত্যার খবর আসে। দুজনকে গলা কেটে খুন করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। আরও দুই ব্যক্তির হাত ও পা কেটে নিয়েছে দুষ্কৃতীরা। পরিবার সূত্রে খবর শনিবার রাতে ঠিকাদার খবর দেয় এই ঘটনার। শেখ ইদ্রিস আলি ও মহম্মদ আলি নামে দুই ব্যক্তির গলা কেটে খুন করা হয়েছে। পাশাপাশি আরও দুই ব্যক্তির হাত পা কাটা হয়। তাদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। অসম থেকে বাঙালিদের তড়ানোর ঘটনা নিয়ে শোরগোল পড়ে ছিল। এই ঘটনা কি নিছক খুন, না পিছনে অন্য কিছু আছে, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে রাজনৈতিক মহলে। রাজ্যের পরিবহণমন্ত্রী তথা জেলার তৃণমূল নেতা শুভেন্দু অধিকারী খুনের ঘটনায় এনআরসি আর বাঙালি বিতারণের দিকেই ইঙ্গিত করেছেন।