তিয়াষা গুপ্ত, টিডিএন বাংলা, কলকাতা: সোমবার অবনীন্দ্র সভাঘরে হয়ে গেল কথা মঞ্জরীর বর্ষপূর্তির দ্বিতীয় পর্বের অনুষ্ঠান। গুটি গুটি পায়ে এক বছর পেরলো এই সংস্থা। সায়ন্তনী বসুর হাত ধরে আজ সে অনন্য। কর্ণধার সায়ন্তনীর কথায়, পরের পর আবৃত্তি, শ্রুতি নাটক সামগ্রিকভাবে শ্রুতি-কথা নিয়ে নানা পরীক্ষামূলক উপস্থাপনার মধ্যে দিয়ে আমরা দর্শকদের কাছে নতুন কিছু হাজির করতে চাই। তিনি আরও বলেন, নতুন কিছু উপস্থাপনা করার তাগিদেই এই প্রয়াস।

কথা মঞ্জরী গড়িয়ার নিজস্ব উপস্থাপনা আবৃত্তি আলেখ্য- পথ। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের `পায়ে চলার পথ’ অবলম্বনে। অবনীন্দ্র সভাঘরে উপস্থিত শ্রোতা বিশ্বজিৎ ঘোষের কথায়, সায়ন্তনীর আবৃত্তি আলাদা করে প্রশংসার দাবি রাখে। এছাড়াও তিনি বলেন, অঞ্জনা গুহঠাকুরতা, সুবর্ণা মজুমদার, সঞ্জিতা চট্টোপাধ্যায়, প্রদীপ সরস্বতী ও লিপিকা চৌধুরীর পরিবেশনা দর্শকদের বহুদিন মনে থেকে যাবে। সামগ্রিক পরিকল্পনায় সুমন বসু।

সংগীতা দাস ভদ্র সুদূর রানাঘাট থেকে এসেছেন। তিনি কবিতা কোলাজ – নারীর আত্মকথন পরিবেশন করেন। আর এক শ্রোতা তানির কথায়, তাঁর উপস্থানপনা অনন্য সব কবিতার সম্ভারে পূর্ণ।

কবিতা কোলাজ- আনন্দিত বাদল ধারা -পরিবেশনের পর সঞ্চালক আশিস দাশগুপ্ত বলেন, আযুশ্রী পালের মধ্যে ধরা পড়ল আগামীর এক উজ্জ্বল সম্ভাবনা। তিনি আরও বলেন, আজ কবি সৈয়দ হাসমত জালাল, কবি দীপক বসু, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সুমন বসুর উপস্থিতিতে রিদ্ধ হল কথা মঞ্জরী। সায়ন্তনী জানালেন, কবিতার রেশ নিয়েই এদিন শেষ হল দ্বিতীয় পর্বের শ্রুতি কথা উৎসব। এবার প্রস্তুতি পরের পর্বের জন্য।