নিজস্ব প্রতিনিধি, টিডিএন বাংলা, কলকাতা: একুশে জুলাই এর মঞ্চ থেকে একদিকে যেমন বিরোধীদের কড়া বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একইসঙ্গে দলের কর্মীদের আরো সঙ্গবদ্ধ হয়ে ময়দানে নামার ডাক দিলেন মমতা বন্দোপাধ্যায়। রবিবাসরীয় একুশে জুলাই এর মঞ্চ থেকে দলের কর্মীদের জন্য রুট ম্যাপ তৈরি করে দিলেন তিনি। সময় নষ্ট না করে মানুষের বাড়ি বাড়ি যাওয়ার বার্তা দিলেন তিনি। বাড়িতে বসে থেকে নয় রাস্তায় নেমে ময়দানে লড়াই করে তৃণমূলের পুরনো জায়গা ছিনিয়ে আনার ডাক দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য মানুষের বাড়িতে বাড়িতে পৌঁছাতে হবে। তাদের অভাব-অভিযোগ শুনতে হবে। শুধুমাত্র তাই নয় প্রত্যন্ত এলাকার মানুষের সঙ্গে সময় কাটানোর পরামর্শ দিলেন তিনি। শহর এলাকার নেতাকর্মীদের পরামর্শ মানুষের যেকোনো সমস্যায় পাশে দাঁড়ানোর। একই সঙ্গে একগুচ্ছ কর্মসূচি তৈরি করে দিলেন দলনেত্রী। ছাব্বিশে জুলাই থেকে কাট মানির পাল্টা হিসাবে ব্ল্যাক মানি ফেরতের দাবিকে আন্দোলন করবে তৃণমূল। ২৯ জুলাই ব্লকে ব্লকে, বুথে বুথে জনসংযোগ যাত্রা করার ডাক মমতা বন্দোপাধ্যায়ের। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আশাবাদী এই কর্মসূচির মাধ্যমে মানুষের মন জয় করা সম্ভব হবে।

৯ আগস্ট বিজেপি বাংলা ছাড়ো এই আন্দোলন শুরু করতে চলেছে তৃণমূল। ঐদিন জেলায় জেলায় এই আন্দোলন কর্মসূচি পালন করবে তৃণমূল কর্মী সমর্থকরা। ১৫ আগস্ট রাখি পূর্ণিমার দিন টিকে রাজনৈতিকভাবে ব্যবহার করতে চাইছে তৃণমূল কংগ্রেস। মানুষ মানুষের সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে তুলতে এই দিন দলের কর্মীদের ব্লকে ব্লকে কর্মসূচি গ্রহণের পরামর্শ দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

২৮ আগস্ট গান্ধী মূর্তির পাদদেশে প্রতিষ্ঠা দিবস পালন করবে তৃণমূল ছাত্র পরিষদ। ৫ সেপ্টেম্বর শিক্ষক দিবস। ঐদিন সমস্ত এলাকার সব শিক্ষকদের সম্মান জানানোর জন্য দলের কর্মীদের নির্দেশ দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ২৬ সেপ্টেম্বর ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের জন্ম দিবস উপলক্ষে বিশেষ অনুষ্ঠানে বিদ্যাসাগরের মেদিনীপুরের বাড়িতে যোগ দেবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এক কথায় বলা যেতে পারে দলের কর্মীদের মনোবল চাঙ্গা করতে ২১ জুলাই এর মঞ্চ থেকে দলের কর্মী-সমর্থকদের নতুন করে ময়দানে নামার বার্তা দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একই সঙ্গে দিলেন ভোকাল টনিক।