নিজস্ব সংবাদদাতা, টিডিএন বাংলা, মুর্শিদাবাদ: দীর্ঘ চিকিৎসা প্রক্রিয়া সেরে অবশেষে একটু সুস্থ হতেই আজ বুধবারই বাড়ি ফিরছেন জহিরউদ্দিন সরকার। কাশ্মীরে কাজ করতে গিয়ে নিহত পাঁচ শ্রমিকের মৃতদেহ তাদের বাড়িতে এলেও গুলি খেয়েও প্রাণে বেঁচে কাশ্মীরের কুলগ্রামের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন মুর্শিদাবাদের সাগড়দিঘির বাহালনগর গ্রামের বাসিন্দা জহিরউদ্দিন সরকার। আজ বুধবার রাতে কলকাতা বিমানবন্দরে নামার পরেই জখম জহিরউদ্দিন সরকারকে নিয়ে যাওয়া হবে পিজি হাসপাতালে। চিকিৎসা সেরেই বাড়ি ফেরার কথা তার।

ফোনে জখম জহিরউদ্দিন এর স্ত্রী জানান, সকাল নয়টার স্বামীর সাথে কথা হয়েছে। তিনি আপাতত সুস্থ। ফোনে জহিরউদ্দিন সরকার স্ত্রীকে জানিয়েছেন, কাশ্মীরে বর্তমানে ব্যপক তুষারপাত হচ্ছে। তুষারপাত বন্ধ হলে আজই তিনি বাড়ি ফিরবেন। এদিকে জহিরউদ্দিন সরকারকে আনতে সকালেই ট্রেনে কলকাতা যান জখম জহিরউদ্দিন সরকারের স্ত্রী ও পরিবারের লোকজন। কলকাতা এয়ারপোর্ট থেকে সরাসরি পিজি হাসপাতালে ভর্তি করে সুস্থ করেই বাড়ি নিয়ে আসা হবে তাকে।

উল্লেখ্য, গত ২৯ শে অক্টোবর কাশ্মীরের কুলগ্রামে এক জঙ্গিদের গুলিতে প্রাণ হারান মুর্শিদাবাদের পাঁচ শ্রমিক। সাগড়দিঘির বাহালনগরের এই শ্রমিকদের মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ হয়েছিল গোটা রাজ্য। পরপর তিনটি গুলি লাগলেও কোনোরকমে প্রাণে বেচেঁছেন একই গ্রামের বাসিন্দা জহিরউদ্দিন সরকার। হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে আপাতত সুস্থ হয়েছেন তিনি। তারপরেই তাকে স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় বাড়ি নিয়ে আসার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

(নিজস্ব চিত্র)