টিডিএন বাংলা ডেস্ক: পরিবার থেকে প্রশাসন, গ্রামবাসী সকলেই স্পষ্ট ভাবে জানালেও নিজেদের সিদ্ধান্তেই যেন অনড় বিজেপি। জিয়াগঞ্জে নিহত শিক্ষক আরএসএসই করতেন। নিয়মিত সাপ্তাহিক বৈঠকেও অংশগ্রহণ করতেন! এমনই দাবি করলেন বিজেপি বাঁকুড়ার বিজেপি সাংসদ সুভাষ সরকার। আজ মুর্শিদাবাদ জেলা পুলিশ সুপারের সাথে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, “উনি সংঘের সদস্য ছিলেন । বাড়ির কাছের সংঘের শাখাতে নিয়মিত যেতেন। বিশেষ করে শনিবার ও রবিবার।” পরিবারের আরএসএস যোগের দাবি অস্বীকার নিয়ে তিনি বলেন, অনেকে অনেক রকম চাপে নতি স্বীকার করতে বাধ্য হন । তাদের উপর পারিপার্শ্বিক চাপ থাকতে পারে। পাশাপাশি এদিন তিনি রাজ্য সরকারের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা নিজে থেকেই বলুন ঘটনায় সিবিআই তদন্ত দরকার। কারন এত বড় একটা নৃশংশ ঘটনায় কিনারা করতে পারছে না রাজ্য।