টিডিএন বাংলা ডেস্ক: চলমান ইরান ও আমেরিকার দ্বন্দ্ব নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট করে নিজের চাকরি খোয়ালেন এক ভারতীয় বংশোদ্ভূত আমেরিকান প্রফেসর। জানা গেছে ওই প্রফেসরের নাম অ্যাশিন ফ্যানসে। তিনি আমেরিকার বাবসোন কলেজে পড়াতেন। সম্প্রতি আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প টুইটারে বলেছিলেন, ইরানের ঐতিহাসিক স্থানগুলিকে টার্গেট করা হবে। ট্রাম্পের এমন টুইটের পর তিনি ফেসবুকে জোক একটি পাল্টা পোস্ট করেন। তাতে লিখেন, ইরানেরও উচিত আমেরিকার ৫২ টি জায়গাকে টার্গেট করা। তার মধ্যে অবশ্যই থাকবে মিনেসোটায় ‘মল অব আমেরিকা’ আর কার্দাশিয়ানদের বাড়ি।

উল্লেখ্য, মল অব আমেরিকা সেদেশের অন্যতম দ্রষ্টব্য জায়গা। কার্দাশিয়ান পরিবারে বেশ কয়েকজন সেলিব্রিটি রয়েছেন। এমন ঠাট্টা করার জন্য চাকরি গিয়েছে সেই প্রফেসরের।

বাবসোন কলেজ কর্তৃপক্ষ বলেছে, ফ্যানসে তাঁর ব্যক্তিগত ফেসবুক পেজে যে মন্তব্য করেছেন, তা কলেজের মূল্যবোধ ও সংস্কৃতির সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয়। অধ্যাপকের মন্তব্যকে হুমকি হিসাবে দেখছেন অনেকে। ট্রাম্প যে মন্তব্য করেছিলেন, তারও প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। কারণ কোনও ঐতিহাসিক স্থানে বোমাবর্ষণ করা যুদ্ধাপরাধ হিসাবে গণ্য করা হয়।

মার্কিন প্রশাসনের অফিসাররাও জানিয়েছেন, ইরানের ঐতিহাসিক স্থানগুলি ধ্বংস করার কোনও পরিকল্পনা তাঁদের নেই। ফ্যানসে পরে বলেছেন, ‘কেউ যদি ইচ্ছা করে আমার পোস্ট করা জোকের ভুল অর্থ করে তো কিছু করার নেই।’ অধ্যাপকের দাবি, কলেজের উচিত ছিল তাঁর পাশে দাঁড়ানো। তাঁকে বরখাস্ত করে তাঁর স্বাধীন মত প্রকাশের অধিকার খর্ব করা হয়েছে।