টিডিএন বাংলা ডেস্ক: পৃথিবীতে যেসব কারণে প্রাণের অস্তিত্ব আছে তার অন্যতম একটি হলো অক্সিজেন। আর সেই অক্সিজেন নিয়েই একটা বিষয় কপালে ভাঁজ ফেলছে বিজ্ঞানীদের। বিজ্ঞানীরা বলছেন, পৃথিবী থেকে দ্রুত কমে যাচ্ছে অক্সিজেন। এতে ওজনে হালকা হয়ে যাচ্ছে পৃথিবী; যা রীতিমতো উদ্বেগজনক।

পৃথিবী থেকে যে হারে অক্সিজেন কমছে সেই হারে কিন্তু কার্বন ডাই-অক্সাইড কমছে না। আবার বাতাসের নাইট্রোজেন ও মিথেনও সেই হারে কমছে না। বিজ্ঞানীদের ধারণা, বহু কোটি বছর আগে এই একই অবস্থা হয়েছিল আমাদের সবচেয়ে কাছের প্রতিবেশী মঙ্গল গ্রহের।

ঠিক কী কারণে পৃথিবী থেকে এত দ্রুত হারে অক্সিজেন কমে যাচ্ছে তা জানার চেষ্টা করে যাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। এ লক্ষে নরওয়ের উত্তর উপকূল থেকে সম্প্রতি পাঠানো হয় ‘ভিশন্স-২’ নামে একটি অভিনব সাউন্ডিং রকেট।

শুধু রকেট পাঠিয়েই তাদের কাজ শেষ করেননি বিজ্ঞানীরা, একটি গবেষকদল পৌঁছে গিয়েছে নরওয়ের উত্তর উপকূলে। ওই গবেষকদের এক সদস্য বলছেন, ‘অরোরা বোরিয়ালিসের সৌন্দর্য দেখতে আসিনি আমরা। পৃথিবীর বায়ুমণ্ডল পাতলা হয়ে যাওয়া, শ্বাসের বাতাস অক্সিজেনের মহাকাশে দ্রুত চলে যাওয়ার পিছনে বড় ভূমিকা রয়েছে অরোরা বোরিয়ালিসের। আমরা সেটাই দেখতে এসেছি।’ পৃথিবীর বায়ুমণ্ডল উত্তরোত্তর পাতলা হয়ে যাওয়ার ধারণার কথা প্রথম বলেছিলেন স্যার জেমস জিনস। তিনি বলেছিলেন, পৃথিবীর বায়ুমণ্ডল এক দিন আমাদের ছেড়ে মহাকাশে হারিয়ে যাবে। সেই দিন পৃথিবীর আর কোনো বায়ুমণ্ডল থাকবে না। ফলে, বেঁচে থাকার অন্যতম প্রধান উপকরণটি আর পাবে না এই নীলাভ গ্রহের জীবজগৎ। তবে সেটা হতে সময় লাগবে আরও অন্তত ১০০ কোটি বছর।